ঢাকা শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ০১:৪৭ পূর্বাহ্ন

বরগুনায় রিফাত হত্যাকাণ্ড: বরিশাল লঞ্চঘাট থেকে সন্দেহভাজন চারজন আটক

বরিশাল প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ২৮ জুন, ২০১৯
রিফাত শরীফকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে বরিশালে এমভি মানামী লঞ্চ থেকে আটক চার যুবক।

বরগুনা শহরের কলেজ রোড এলাকায় প্রকাশ্যে রিফাত শরীফকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে বরিশাল থেকে চার যুবককে আটক করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৭ জুন)  রাত সাড়ে ৮টার দিকে বরিশাল লঞ্চঘাট থেকে তাঁদের আটক করে বরিশাল কোতোয়ালি মডেল থানা-পুলিশ। আটককৃত চার যুবক বরিশাল থেকে ঢাকাগামী এমভি মানামী লঞ্চে চড়ে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হচ্ছিলেন। তবে লঞ্চ ছাড়ার আগেই পুলিশ তাঁদের আটক করে থানায় নিয়ে যায়। বরিশাল কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নুরুল ইসলাম প্রথম আলোর কাছে এই তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। আটককৃত চারজনের বাড়ি বরগুনা জেলার বিভিন্ন এলাকায় বলে জানালেও পুলিশের পক্ষ থেকে তাঁদের নাম-পরিচয় বলা হয়নি।

ওসি মো. নুরুল ইসলাম বৃহস্পতিবার রাতে বলেন, সকাল থেকেই বরিশাল নগরের বাসস্ট্যান্ড ও লঞ্চঘাটে পুলিশ সদস্যরা নজরদারি করছিলেন যাতে রিফাত হত্যা মামলার কোনো আসামি বরিশাল হয়ে পালাতে না পারেন। রাতে বরিশাল থেকে ঢাকাগামী সকল লঞ্চে তল্লাশি করা হয়। সেসময় এমভি মানামী লঞ্চের নিচতলার ডেক থেকে চার যুবককে আটক করা হয়।

তিনি জানান, আটককৃতদের মধ্যে একজনের চেহারা রিফাত হত্যা মামলার এক আসামির সঙ্গে মিল রয়েছে।

এ মুহূর্তে থানায় পুলিশের বরিশাল রেঞ্জের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা আটককৃত যুবকদের জিজ্ঞাসাবাদ করছেন বলে জানা গেছে। রিফাতের ওপর হামলার ভিডিও ফুটেজ দেখেও তাঁদের শনাক্তের চেষ্টা চলছে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে।

বরিশাল কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি মো. নুরুল ইসলাম বলেন, আটককৃত যুবকদের শনাক্তে বরগুনা জেলা পুলিশের সাহায্য নেওয়া হচ্ছে। রিফাত হত্যায় তাঁদের সম্পৃক্ততা পেলে আটক চারজনকে বরগুনা জেলা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হবে। আর সম্পৃক্ততা না থাকলে জিজ্ঞাসাবাদের পর তাঁদের ছেড়ে দেওয়া হবে।

তবে বরিশাল কোতোয়ালি মডেল থানা-পুলিশের এই কর্মকর্তা আটক চার যুবকের নাম বলতে চাননি। তিনি বলেন, তাঁরা যে নাম-ঠিকানা বলছেন তা সত্য কিনা যাচাই-বাছাই করে দেখা হচ্ছে। তাঁদের বলা নাম-পরিচয়ের বিষয়ে নিশ্চিত হলে প্রকাশ করা হবে। রাত সোয়া ১২টায় এ প্রতিবেদন লেখার সময় তাঁদের থানায় রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছিল।

এর আগে, রিফাত শরীফকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাত আটটা পর্যন্ত তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তিন আসামির মধ্যে মামলার ৪ নম্বর আসামি চন্দনকে (২১) বৃহস্পতিবার সকালে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর দুপুরে গ্রেপ্তার হয় মামলার ৯ নম্বর আসামি হাসান (১৯)। তদন্তের স্বার্থে দুপুরে গ্রেপ্তার আরেক আসামির নাম জানায়নি পুলিশ।

নিহত রিফাতের বাবা বুধবার ১২ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত পাঁচ থেকে ছয়জনকে আসামি করে বরগুনা সদর থানায় হত্যা মামলা করেন।

উল্লেখ্য বুধবার (২৬ জুন) সকালে বরগুনার কলেজ সড়কের ক্যালিক্স কিন্ডারগার্টেনের সামনে প্রকাশ্য দিবালোকে স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকার সামনে রিফাত শরীফকে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এই হামলার ভিডিওচিত্র সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে দেশজুড়ে ব্যাপক আলোচিত হয়। নিহত রিফাত সদর উপজেলার বুড়িরচর ইউনিয়নের দুলাল শরীফের ছেলে।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666
%d bloggers like this: