ঢাকা বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০১:০২ পূর্বাহ্ন

সরকারের সব জারিজুরি ফাঁস হয়ে গেছে : ফখরুল

ঈশ্বরদীনিউজ২৪.নেট, প্রতিবেদন
  • প্রকাশিত: রবিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
মহাসমাবেশে বক্তব্য রাখছেন মির্জা ফখরুল।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আপনারা (সরকার) যে চুরি করছেন এই ক্যাসিনোর মাধ্যমে তা প্রকাশ হয়ে গেছে। ক্যাসিনো তো ক্যাসিনো তার চেয়ে বড় কথা এই সরকার গত এক বছরে ২৭ হাজার কোটি পাচার করেছে। তার চেয়ে বড় অপরাধ ভোটের অধিকারকে ডাকাতি করেছে।

রোববার বিকেলে রাজশাহী মহানগরীর পাঠানপাড়া মোড়ের বড় রাস্তায় বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর একথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, দেশের মানুষ খালেদা জিয়ার মুক্তি চায়। আপনাদের (সরকারের) সব জারিজুরি ফাঁস হয়ে গেছে। ক্ষমতা দিয়ে আর টিকে থাকা যাবে না। তাই এখনও সময় আছে সংসদ ভেঙে দিয়ে অবিলম্বে নিরপেক্ষ কমিশনের অধীনে নির্বাচন দিন।

বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি মানেই গণতন্ত্রের মুক্তি উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার দাবি আদায়ে কি করতে হবে আন্দোলন করতে হবে। দুর্বার আন্দোলন করতে হবে। ভোট ডাকাতি করে, চুরি করে, জনগণের আন্দোলন প্রতিরোধ করা যাবে না।

রাজশাহীর এ সমাবেশ থেকে আমি বলতে চাই, আসুন দলমত নির্বিশেষে গণতন্ত্র পুনদ্ধারে, বাংলাদেশকে রক্ষা করতে, দেশের মানুষকে রক্ষা করতে, মানুষের অধিকারকে ফিরিয়ে আনার জন্য এবং বাংলাদেশের গণতন্ত্রের প্রতীক বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার জন্য আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই আন্দোলনের মাধ্যমে এদেরকে (সরকার) পরিচিত করি এবং জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করি।

মির্জা ফখরুল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্যে করে বলেন, বিদেশে গিয়ে পুরস্কার নিয়ে লাভ হবে না, দেশের মানুষের ভালোবাসা নেন। তা কাজ দিবে।

বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক জিয়ার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহার ও নিঃশর্ত মুক্তির এবং বর্তমান সংসদ ভেঙে দিয়ে নতুনভাবে সংসদ নির্বাচেেন দাবিতে বিভাগীয় এ সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

রাজশাহী মহানগর বিএনপির সভাপতি মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু, আমিনুর রহমান আমিন, আব্দুল লতিফ, কামরুল মনির, রাজশাহী বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, রাজশাহী জেলা বিএনপির আহবায়ক আবু সাঈদ চাঁদ প্রমূখ।

খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, বাংলাদেশে ক্যাসিনো নিষিদ্ধ। রাঘব বোয়ালের মদদ ছাড়া ক্যাসিনো করার সম্ভাব নয়। দেশের জনগন ছিককে ধরে ক্যাসিনো ধামা চাপা দেয়া মানবে না। জনগণ রাঘব বোয়ালদের নাম জানতে চাই। তাদেরকে গ্রেপ্তার করুণ, বিচারের সম্মুখিন করুণ।

মির্জা আব্বাস বলেন, গত ১৩ বছরে তারেক রহমানকে অপরাধি প্রমান করতে সরকারের ব্যায় হয়েছে ৪৫ হাজার কোটি টাকা। কিন্তু তাকে অপরাধি প্রমান করতে পারেনি। এখন দেশের জনগণ জানতে চাই এ টাকা কোথা থেকে এলো। এটাকি ক্যাসিনোর টাকা, এটাকি শেয়ার বাজার না বাংলাদেশ ব্যাংক লুটের টাকা। এটা আজ জনগণ জানতে চাই।

রাজশাহীর বিভাগীয় এই সমাবেশ স্থলে যেতে বিভিন্ন জেলা উপজেলার নেতৃবৃন্দকে পথে পথে বাধা দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেন বিএনপির নেতারা। বৃষ্টির কারণ দেখিয়ে আন্তঃজেলার সকল রুটে বাস চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয় হয় বলে জানান তারা।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666
%d bloggers like this: