ঢাকা শনিবার, ১১ জুলাই ২০২০, ১১:০৫ অপরাহ্ন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল থানার ওসি প্রত্যাহার

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত: রবিবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২০
করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সারা দেশে এখন জনসমাগম নিষিদ্ধ। নামাজও মসজিদে না গিয়ে ঘরে আদায় করার পরামর্শ দিয়েছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন। এ নিয়ম মানা হচ্ছে সৌদি আরবসহ বিভিন্ন মুসলিম দেশে, এমনকি বাংলাদেশেও। অথচ খেলাফত মজলিসের নায়েবে আমির মাওলানা যোবায়ের আহমদ আনসারীর জানাজায় সামাজিক দূরত্বের নির্দেশনা মানা হয়নি। লকডাউন সত্ত্বেও হাজারো মানুষ জানাজায় অংশ নেন। গতকাল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে জামিয়া রহমানিয়া বেড়তলা মাদ্রাসামাঠে। ছবি: ঈশ্বরদীনিউজ টুয়েন্টিফোর

জেলা লকডাউন থাকা সত্বেও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলের বেড়তলায় আল্লামা মাওলানা যুবায়ের আহমদ আনসারীর জানাজায় লাখো জনতার ঢল থামাতে ব্যর্থ হওয়ায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরাইল থানার ওসি শাহদাৎ হোসেন টিটুকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

শনিবার (১৮ এপ্রিল) রাতে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের নির্দেশে তাকে প্রত্যাহার করে জেলা পুলিশ লাইনে সংযোগ করতে বলা হয়। জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার সহকারী পুলিশ সুপার মো: আলাউদ্দিন খবরটি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলায় করোনাভাইরাসের কারণে দেওয়া লকডাউন উপেক্ষা করেই ইসলামি আলোচক আল্লামা মাওলানা যুবায়ের আহমদ আনসারীর জানাজায় অংশ নেয় কয়েক লাখ মুসুল্লি।

শনিবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার জামিয়া রহমানিয়া বেড়তলা মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে এই জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। সামাজিক দূরত্ব বজায় না রেখেই  তার জানাজায় অংশ নেন লাখো মানুষ। এসময় পুলিশ ও স্থানীয় প্রশাসনের ভূমিকা ছিল অনেকটাই নীরব।

এদিকে, লাখো মানুষের উপস্থিতিতে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়বে এমনটাই আশঙ্কা করছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

পরবর্তীতে, সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহাদাৎ হোসেন টিটু সাংবাদিকদের কাছে লাখো মানুষ সমাগমের বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, “এসময় ব্রাহ্মণবাড়িয়া ছাড়াও ঢাকা থেকে প্রচুর মানুষ  আসে। আমরা চিন্তাও করতে পারিনি যে এত লোকসমাগম হবে। এত মানুষ আসতে শুরু করার পর আমাদের আর কিছু করার ছিলো না। ” তবে বলার পর উপস্থিত মানুষ সামাজিক দূরত্ব মেনে জানাজায় অংশ নেন বলে দাবি করেন ওসি ।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২০
 
themebaishwardin3435666