ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০৯ জুলাই ২০২০, ০৩:০৭ অপরাহ্ন

নমুনা সংগ্রহের পর করোনাভাইরাস আক্রান্ত চেয়ারম্যানের ত্রাণ বিতরণ!

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ১ মে, ২০২০
গত ২৯ এপ্রিল ত্রাণ বিতরণ করেন আক্রান্ত প্যানেল চেয়ারম্যান নাসির। ছবি সংগৃহীত

করোনাভাইরাস শনাক্তকরণ পরীক্ষার জন্য শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহের পরেও টানা আট দিন এলাকার অসহায় মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছেন লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি উপজেলার চরগাজী ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন। এই সময়ের মধ্যে তার সংস্পর্শে এসেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার, গ্রাম পুলিশ, ইউপি সদস্যসহ অসংখ্য মানুষ। ইতোমধ্যে হোম কোয়ারেন্টিনে গেছেন ইউএনও আব্দুল মোমিন।

গত ২২ এপ্রিল তার শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয় এবং ২৯ এপ্রিল রিপোর্ট “কোভিড-১৯ পজিটিভ” আসে। পরীক্ষাটি করা হয় চট্টগ্রামে অবস্থিতি বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজে (বিআইটিআইডি)।

এই সময়ের মধ্যে তার শরীরে সংক্রমণের কোনো লক্ষণ ছিলো না বলে দাবি করেছেন প্যানেল চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন।

তিনি জানান, সম্প্রতি স্বাস্থ্যকর্মীরা ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ থেকে তার ইউনিয়নে আসা ব্যক্তিদের নমুনা সংগ্রহের জন্য গেলে তিনিও পরীক্ষার জন্য নমুনা দেন। ২৯ এপ্রিল তার কোভিড-১৯ পজিটিভ রেজাল্ট আসে। তার আগে ইউনিয়নের সাড়ে ৩ হাজার মৎস্যজীবীর মাঝে চাল ও আরও ৫ শ’ মানুষের মাঝে বিভিন্ন ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করেন তিনি।

২৯ এপ্রিল দুপুরে ত্রাণ বিতরণের সময় তার সঙ্গে ছিলেন ইউএনও আব্দুল মোমিন।

ইউএনও বলেন, “প্যানেল চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিনের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি আমি জানতাম না। তার রিপোর্ট পজিটিভ আসার পর থেকে আমি হোম কোয়ারেন্টিনে আছি। ইউনিয়ন পরিষদের সব সদস্য, গ্রাম পুলিশ ও সচিবের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। আমি নিজেও ২/১ দিনের মধ্যে নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠাবো।”

এদিকে, এলাকাবাসীর আশঙ্কা, করোনাভাইরাস আক্রান্ত প্যানেল চেয়ারম্যানের ত্রাণ বিতরণ ও জনসংশ্লিষ্টতার কারণে ইউনিয়নে সংক্রমণ বাড়তে পারে।

যারা সম্প্রতি তার সংস্পর্শে এসেছেন তাদের সবাইকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার জন্য পরার্মশ দেওয়া হয়েছে বলে জানান ইউএনও।

এ বিষয়ে রামগতি উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. আব্দুর রহিম বলেন, প্যানেল চেয়ারম্যানের সংস্পর্শে এসেছেন এমন ২৭ ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হচ্ছে। আগামীকাল ইউএনও, এসিল্যান্ড, থানার অফিসার ইনচার্জ ও হাসপাতালের আরএমওসহ ১০-১২ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে।

খবর কৃতজ্ঞতা: ঢাকা ট্রিবিউন

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২০
 
themebaishwardin3435666