ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ১১:৫২ পূর্বাহ্ন

দূরত্ব বজায় রেখে আদায় হলো জুমা

নিজস্ব প্রতিবেদন
  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ২৭ মার্চ, ২০২০
জুমা নামাজের আগে বায়তুল মোকাররম মসজিদে জীবাণুনাশক স্প্রে করা হয়। ছবি: সাইফুল ইসলাম।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে রাজধানীর বিভিন্ন মসজিদে দূরত্ব বজায় রেখে জুমার নামাজ আদায় করেছেন মুসল্লিরা। একইসঙ্গে মসজিদগুলোতে নামাজ আদায় করতে আসা মুসল্লিদের অনেকেই মাস্ক ব্যবহার করতে দেখা গেছে। মুসল্লিদের উপস্থিতিও আগের চাইতে কম ছিল।

শুক্রবার সরেজমিনে রাজধানীর বেশ কয়েকটি মসজিদ ঘুরে এমন চিত্র দেখা যায়।

গ্রিন রোডের ২০০ নাম্বার গলির তাকওয়া মসজিদের ইমাম কবির হোসেন বলেন, ‘করোনায় সর্তকর্তা হিসেবে আমাদের মজিদে দূরত্ব বজায় রেখে নামাজ আদায় করা হয়েছে। আমরা গত কয়েকদিন থেকে আমাদের মসজিদে সবাইকে ফরজ শুধু মসজিদে পড়তে বলছি। তবে সুরক্ষা হিসেবে সবাইকে মাস্ক ও দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশনা দিচ্ছি।’

এই মসজিদের মুসল্লি আজিজ খালাশি বলেন, ‘জুমার নামাজ আদায় করতে মসজিদে আসছি। আমাদের এই সমজিদে দূরত্ব বজায় রেখে নামাজ আদায় করা হচ্ছে।’

সরকারের নির্দেশনা ও দেশের সর্বস্তরের আলেমদের পক্ষ থেকে স্বাস্থ্যবিধি মানার কথা বলার পরেও কয়েকটি মসজিদে দূরত্ব বজায় রেখে নামাজ আদায় না করার তথ্য এসেছে ।

এদিকে নিরাপত্তার সার্থে আজ জুমা নামাজের আগে মসজিদে মসজিদে জীবাণুনাশক স্প্রে করা হয়েছে।

বাংলাদেশে গত ৮ মার্চ প্রথম তিনজনের করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংবাদ আসে। আজ শুক্রবার পর্যন্ত দেশে মোট ৪৮ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানিয়েছে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর)। আর মারা গেছেন পাঁচজন।

দেশে করোনাভাইরাস শনাক্তের পর থেকে মসজিদে জামায়াতে এসে নামাজ আদায় করার বিষয়ে নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে। করোনা ইস্যুতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মসজিদে সাময়িকভাবে জামাত আদায় বন্ধ করা হয়েছে। অনেক দেশে বাসায় বসে নামাজ আদায় করার জন্য আজানে সামান্য পরিবর্তনও আনা হয়েছে।

বাদ যায়নি বাংলাদেশও। করোনাভাইরাস সংক্রমণ থেকে সুরক্ষা নিশ্চিত না হয়ে জুমাসহ অন্যান্য নামাজের জন্য মসজিদে না যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন (ইফা)।

গত মঙ্গলবার দেশের প্রখ্যাত আলেমদের পরামর্শে এ সিদ্ধান্ত নেয় ইফা। তারা আজও জুমার নামাজকে কেন্দ্র করে আবারও একই আহ্বান জানিয়েছে।

আলেমরা পরামর্শ দিয়েছেন, করোনার সংক্রমণ রোধে জরুরি পদক্ষেপ হিসেবে সব ধরনের জনসমাগম বন্ধের পাশাপাশি মসজিদে জুমা ও জামাতে মুসল্লিদের অংশগ্রহণ সীমিত রাখা। মসজিদ বন্ধ থাকবে না, তবে সুরক্ষা নিশ্চিত না হয়ে মসজিদে আসা যাবে না।

গত বুধবার স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও করোনার বিস্তার রোধে মুসলমানদের ঘরেই নামাজ আদায়ের অনুরোধ জানিয়েছেন। অন্যান্য ধর্মাবলম্বীদেরও ঘরে বসে প্রার্থনা করার অনুরোধ জানন প্রধানমন্ত্রী।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666
%d bloggers like this: