ঢাকা রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ০৫:৩৮ অপরাহ্ন

রোগের দাওয়াই বাদাম!

বার্তা কক্ষ
  • প্রকাশিত: বুধবার, ১ জানুয়ারী, ২০২০

পুষ্টিগুণ ও শারীরিক উপকারিতার দিক থেকে দেখতে গেলে বাদামের কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন, ক্যালসিয়াম, ভিটামিন ই, ফাইবার, সেলেনিয়াম, ভিটামিন সি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, অ্যামাইনো অ্যাসিড, পটাশিয়াম এবং ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড এবং আরও কত কী, যা নানাভাবে শরীরের কাজে লেগে থাকে।

গবেষণায় দেখা গেছে, যারা নিয়মিত বাদাম খান তারা দীর্ঘায়ু হন। বাদামে এমন গুণ আছে, যা জীবনকে রাখে সর্বদা আনন্দময়।বাদামে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন। হৃদযন্ত্র সুস্থ রাখতে এর বিকল্প নেই। রক্তে সুগারের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ রাখার পাশাপাশি স্বাস্থ্যের সমস্ত রকম রোগ থেকে মুক্ত রাখে।

চীনা বাদাম, কাঠ বাদাম, পেস্তা বাদাম, কাজু বাদাম ছাড়াও বাজারে অনেক রকমের বাদাম পাওয়া যায়। যা আলাদা আলাদা ভিটামিন ও প্রোটিন সমৃদ্ধ এবং তাদের স্বাদও ভিন্ন। দেখে নেওয়া যাক বাদামের পুষ্টিগুণ ও বিভিন্ন রোগের সমস্যার সমাধান।

বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে নিয়মিত কেউ যদি এক বাটি করে বাদাম খাওয়া শুরু করেন, তাহলে শরীরে এমন কিছু উপাদানের প্রবেশ ঘটে, যা এই যুদ্ধ শরীরকে চাঙ্গা তো রাখেই, সেইসঙ্গে একাধিক রোগকে দূরে রাখতেও বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

চীনা বাদাম

বাদামের মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয়তা বেশি এই বাদামে। চীনা বাদাম একটি পুষ্টিকর খাবার। গবেষণায় দেখা গেছে, খাবারের তালিকায় প্রতিদিন চীনা বাদাম রাখলে ডায়াবেটিস হওয়ার প্রবণতা কম থাকে। এতে ১৫৮ ক্যালোরি, ৪.৬ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট, ৭.১ গ্রাম প্রোটিন, ১৩.৬ গ্রাম ফ্যাট রয়েছে।

চীনা বাদাম মাখন একটি সুস্বাদু খাবার। এই খাবারের উপর স্বাস্থ্যকর উপায় হল এর থেকে বেশি বাদাম পাওয়া যায়। চীনা বাদামে উপস্থিত আয়রন ও জিঙ্ক যা আমাদের সুস্থ রাখতে সহায়ক। ডায়াবেটিস রোগীদের জন্যও এটি সুস্বাস্থ্য খাবার। এটি রক্তে খারাপ চর্বি বা কোলেস্টেরল এর মাত্রা কমায়। চীনা বাদামে রয়েছে খনিজ ম্যাগনেসিয়াম, যা ত্বক ও চুল মসৃণ করার পাশাপাশি দাঁত ও মাড়িকে মজবুত করে।

কাঠ বাদাম

সাধারণত কাঠ বাদাম আমন্ড বাদাম হিসাবে পরিচিত। কাঠ বাদাম দেখতে প্রায় গোলাকার। এই বাদামটিতে কাঠের মতো খোলস থাকে। কাঠ বাদাম বিশ্ব জুড়ে খ্যাতি অর্জন করেছে। এই বাদামে রয়েছে ভিটামিন বি ও ফলিক অ্যাসিড। যা মস্তিষ্কের বিকাশ ঘটাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এটি রক্তে কোলেস্টেরল এর মাত্রা নিয়ন্ত্রণ রাখে এবং অন্ত্রের জন্য উপকারী। নিয়মিত এই বাদাম হজমশক্তি বাড়ায়। বাড়ন্ত বাচ্চাদের খাদ্য তালিকায় এই সুস্বাস্থ্য স্ন্যাক্সটি রাখা জরুরি।

এটি স্বাস্থ্যের পাশাপাশি ত্বকেরও যত্ন রাখে। এতে উপস্থিত ভিটামিন বি যা ত্বকের খেয়াল রাখে। কাঠ বাদাম বাটা ও কাঁচা দুধ একসঙ্গে মিশিয়ে মাখলে ত্বকের উজ্জ্বলতা ফিরে আসে। কাঠ বাদামে রয়েছে ১৬১ ক্যালোরি, ৫.৯ গ্রাম প্রোটিন, ১৩.৮ গ্রাম ফ্যাট।

পেস্তা বাদাম

এই বাদাম সালাদ তৈরি করতে বা রান্নার কাজে ব্যবহার করা হয়। এটি খুবই সুস্বাদু বাদাম। একে আদর্শ খাবারের তালিকায় রাখা যায়। কারণ এই বাদামে ভিটামিন বা প্রোটিন কোনও কিছু কমতি নেই। হৃদযন্ত্র সুস্থ রাখতে, ওজন কমাতে ও উচ্চ রক্তচাপ কমাতে এটি অতুলনীয়।

পেস্তা বাদামে ১৫৬ ক্যালোরি, ৭.৮ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট, ৫.৮ গ্রাম প্রোটিন, ২.৯ গ্রাম ফাইবার, ১২.৪ গ্রাম ফ্যাট থাকে। নিয়মিত এই বাদাম খেলে ফুসফুসে ক্যান্সার রোধ হয়। পাশাপাশি পেস্তার তেল ত্বকের পরিচর্চায় খুব কার্যকার। ত্বক খসখসে হয়ে যাওয়া থেকে বাঁচায়।

কাজু বাদাম

কাজু বাদাম প্রধানত ভিয়েতনাম ও নাইজেরিয়া থেকে আমদানি হয়। এতে রয়েছে ১৫৫ ক্যালোরি, ৯.২ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট, ৫.১ গ্রাম প্রোটিন, ০.৯ গ্রাম ফাইবার, ১২.৩ গ্রাম ফ্যাট। চীনে এই বাদামের তৈরি খাবার খুব সুস্বাদু। গবেষণায় দেখা গেছে, কাজু বাদাম ডায়াবেটিসের প্রকোপ কমায়। এছাড়াও হার্টের অসুখ রোধ করে, ব্ল্যাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণে রাখে ও চুলের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে। প্রতিদিন একমুঠো কাজু বাদাম খেলে ক্যান্সার প্রতিরোধ হয়।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666