ঢাকা শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ০৮:৪৭ অপরাহ্ন

নতুন স্বাভাবিকে ক্রিকেটের জয়োৎসব

মোহাম্মদ জুবাইর, মাসকাট
  • প্রকাশিত: রবিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০২১
টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য প্রস্তুত ওমানের আল আমেরাত ক্রিকেট স্টেডিয়াম। এ মাঠে ওমান–পাপুয়া নিউগিনি ম্যাচ দিয়ে আজ শুরু হচ্ছে টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। ছবি: এএফপি

প্রথমে ইউরো ও কোপা আমেরিকা। এরপর অলিম্পিক। করোনার নতুন স্বাভাবিক জীবনে খেলাধুলার তিনটি বৈশ্বিক আসরের মঞ্চায়ন হয়ে গেছে এ বছর। বাকি ছিল শুধু ক্রিকেট। মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ওমান ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ক্রিকেটের সেই শূন্যতা পূরণ করতে যাচ্ছে। আজ স্বাগতিক ওমান ও পাপুয়া নিউগিনির ম্যাচ গিয়ে বেজে উঠবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ডামাডোল, যার মধ্য দিয়ে ক্রিকেট বিশ্বের পাঁচ বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটবে। প্রায় এক মাসের ক্রিকেট-‘যুদ্ধ’ শেষ হবে আগামী ১৪ নভেম্বর দুবাইয়ের ফাইনালে। ক্রিকেট বিশ্ব পাবে টি-টোয়েন্টির নতুন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আগে হতো দুই বছর পরপর, যার সর্বশেষটি হয়েছে ২০১৬ সালে। ওয়ানডে বিশ্বকাপের মতো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকেও সমান গুরুত্ব দিতে দুই বিশ্বকাপের মাঝে চার বছর বিরতির সিদ্ধান্ত নিয়েছিল আইসিসি। পরে সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে তারা। কিন্তু করোনার কারণে ২০২০ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপটি পিছিয়ে চলে যায় ২০২২ সালে, অস্ট্রেলিয়ায় হওয়ার কথা ছিল সেটি। আর এ বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপটি হওয়ার কথা ছিল ভারতে। করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের তোড়ে ভারত থেকে সেটি শেষ পর্যন্ত চলে যায় ওমান ও আমিরাতে। তবে বিশ্বকাপের আয়োজক থাকছে ভারতই।

করোনায় ভারতের ক্ষতি হলেও লাভ হয়েছে ওমানের মতো সহযোগী সদস্য দেশের। আমিরাতের তিন বিখ্যাত ভেন্যু দুবাই, শারজা ও আবুধাবিতে নিয়মিতই ক্রিকেট হয়। অথচ সীমান্তের ওপারের ওমানে এক বছর আগেও আন্তর্জাতিক মানের কোনো ক্রিকেট অবকাঠামো ছিল না। বিশ্বকাপ তাদের ভাগ্য বদলে দিয়েছে। আজ স্বাগতিক ওমান ও পাপুয়া নিউগিনির উদ্বোধনী ম্যাচ দিয়ে এবারের বিশ্বকাপ শুরুই হচ্ছে মাসকাটের আল আমেরাত ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। এ মাঠে কিছুদিন আগেও গ্যালারি, প্রেসবক্স বলতে কিছু ছিল না।

বিশ্বকাপ উপলক্ষে নতুন সাজে সেজেছে স্টেডিয়ামটি। শেষ পর্যন্ত যেটি দাঁড়িয়েছে, সেটিকে হয়তো বিশ্বকাপের জন্য আদর্শ বলা যাবে না, তবে এত অল্প সময়ের মধ্যে বিশ্বকাপের ভেন্যু প্রস্তুত করার চেষ্টার জন্যই ওমান ক্রিকেট বোর্ড প্রশংসা পেতে পারে।

মাঠের পারফরম্যান্সেও ওমানের উন্নতি চোখে পড়ার মতো। ২০১৬ সালের সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দিয়ে বিশ্বকাপে যাত্রা শুরু হয় ওমানের। প্রথমবারই আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে চমক দেখায় দলটি। ২০১৯ সালে তারা ওয়ানডে মর্যাদাও পেয়ে যায়। এবার বাছাইপর্বের বাধা ডিঙিয়ে বিশ্বকাপে জায়গা করে নিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের দলটি।

আজ ওমানের প্রতিপক্ষ ‘বি’ গ্রুপের আরেক দল পাপুয়া নিউগিনি (পিএনজি) এবারই প্রথম বিশ্বকাপে খেলছে। সর্বশেষ তিনটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের খুব কাছাকাছি গিয়েও বাদ পড়েছে পিএনজি। তবে এবার বাছাইপর্বটা পেরিয়েছে দাপটের সঙ্গেই। আইসিসির টি-টোয়েন্টি র‍্যাঙ্কিংয়েও তাদের অবস্থান (১৫) ভালো।

একই ভেন্যুতে আজ দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশ দল মুখোমুখি হবে স্কটল্যান্ডের। বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হিসেবে এক মাস ধরেই আমিরাত ও ওমানে সময় কাটাচ্ছে স্কটল্যান্ড দল। গত দুই সপ্তাহে পাঁচটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে জিতেছে ৪টিতেই। তারা যাদের হারিয়েছে, তাদের মধ্যে আয়ারল্যান্ড আবার প্রস্তুতি ম্যাচে হারিয়েছে বাংলাদেশকে।

প্রথম পর্বে গ্রুপ ‘বি’র ছয়টি ম্যাচই হবে মাসকাটের আল আমেরাত স্টেডিয়ামে। গ্রুপ ‘এ’-এর ছয় ম্যাচের ভেন্যু আরব আমিরাতের আবুধাবি স্টেডিয়াম। সেখানে খেলবে শ্রীলঙ্কা, আয়ারল্যান্ড, নামিবিয়া ও নেদারল্যান্ডস। দুই গ্রুপ থেকে দুটি করে চারটি দল যাবে সুপার টুয়েলভে। ২৩ অক্টোবর শিরোপার মূল লড়াইটা শুরু হবে সংযুক্ত আরব আমিরাতে।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666