ঢাকা সোমবার, ০৩ অগাস্ট ২০২০, ০২:৪৭ অপরাহ্ন

এ আর রাহমানের বিরুদ্ধেও ষড়যন্ত্র

বিনোদন সংবাদ
  • প্রকাশিত: রবিবার, ২৬ জুলাই, ২০২০
এ আর রাহমান। ছবি: ফেসবুক

সংগীত পরিচালক কিংবা সুরকার হয়েও যে রীতিমতো প্রথম সারির তারকা হওয়া যায়, আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ড হয়ে ওঠা যায়, তার প্রমাণ এ আর রাহমান। ভারতের চলচ্চিত্র জগতে তিনি তারকাদের তারকা। নেপথ্যের মানুষ হয়েও এমন তারকাবাজি, এ আর রাহমানের আগে কোনো ভারতীয় সংগীত পরিচালক করে দেখাতে পারেননি। তাঁকে দক্ষিণ ভারতের মানুষ ডাকে ‘দ্য মোৎসার্ট অব মাদ্রাজ’ নামে। অথচ এই এ আর রাহমানকেও লড়াই করতে হচ্ছে অশুভ চক্রের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে। শিল্পী নিজেই জানালেন, তাঁকে বলিউড থেকে বাদ দেওয়ার জন্য একটি চক্র তৎপর।

বলিউড তারকা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর এক মাসের বেশি সময় চলে গেল। তবু থামেনি সুশান্তের আত্মহত্যা নিয়ে কাদা–ছোড়াছুড়ি, চুলচেরা বিশ্লেষণ। মেধাবী এ তারকার হঠাৎ অস্বাভাবিক মৃত্যু নাড়িয়ে দিয়েছে বলিউডকে। তাঁর মৃত্যুর পর থেকেই বলিউডের ভেতরের নানান অজানা কথা সামনে আসতে শুরু করেছে।

সেই সময়, অর্থাৎ শুরুর দিকে একসময়ের বলিউডে ভীষণ ব্যস্ত গায়ক সোনু নিগম বলেছিলেন, মিউজিক ইন্ডাস্ট্রি থেকেও এমন আত্মহত্যার খবর পাবেন। এর মধ্যে স্বজনপ্রীতি নিয়ে কঙ্গনা রনৌত একের পর এক মন্তব্য করেছেন। সম্প্রতি সর্বভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমে সে দেশের সমকালীন সবচেয়ে আলোচিত সংগীত তারকা এ আর রাহমান মুখ খুললেন বলিউডে তাঁর অবস্থান নিয়ে। অস্কারের মঞ্চ মাতিয়ে আসা এ সংগীত ব্যক্তিত্ব বলছেন, তিনি বলিউডের একটি প্রভাবশালী গোষ্ঠীর (গ্যাং) ষড়যন্ত্রের শিকার, তারা তাঁকে বলিউড থেকে সরিয়ে দিতে চাইছে!

কথা উঠেছে, বর্তমানে এ আর রাহমান ভারতের দক্ষিণী সিনেমায় নিয়মিত গান করেন। দেশ–বিদেশ বড় সংগীতায়োজনে গান করেন। কিন্তু তাঁকে বলিউডে নিয়মিত পাওয়া যায় না। তুলনামূলকভাবে বলিউডে তাঁর গানের সংখ্যা কম। এমন প্রশ্নের জবাবে এ আর রাহমান সরাসরি জানিয়ে দিলেন, বলিউডে একশ্রেণির গোষ্ঠীর আধিপত্য চলে। আক্ষেপ নিয়ে তিনি বলেন, ‘আমাদের বলিউড চলচ্চিত্রশিল্পে একটা অশুভ গোষ্ঠী আছে। এরা আমার বিরুদ্ধে গুজব ছড়িয়ে বেড়ায়। পরিকল্পনা করে আমাকে নিয়ে, কাজ নিয়ে নেতিবাচক মন্তব্য করে বেড়ায়।’

তবে বিশেষ চক্রের সক্রিয়তায় বিচলিত হলেও হতাশ নন এ আর রাহমান। তিনি মন্তব্য করেন, ‘আমার জানামতে অনেকে চাইছেন আমি কাজ করি। কিন্তু সেই গোষ্ঠী সেখানে বাধা দিচ্ছে, ফিরিয়ে দিচ্ছে অন্যদিকে। তাতে কী? চলুক না। আমি ভাগ্যে বিশ্বাসী, সৃষ্টিকর্তায় বিশ্বাসী। আমি মনে করি, ভালো কাজ সৃষ্টিকর্তাই দেন। কিন্তু সবাইকে বলতে চাই, আমি সবার সঙ্গে কাজ করতে চাই। ভালো ভালো ছবিতে কাজ করতে চাই। আমার দরজা সবার জন্য খোলা রইল।’

২৪ জুলাই ডিজনি হটস্টারে মুক্তি পেয়েছে সুশান্ত সিং রাজপুতের শেষ ছবি এবং সানজানা সাংঘি ও পরিচালক মুকেশ ছাবড়ার প্রথম ছবি ‘দিল বেচারা’। জনপ্রিয় উপন্যাস ও একই নামে তৈরি হওয়া হলিউড ছবি ‘দ্য ফল্ট ইন আওয়ার স্টারস’ অবলম্বনে মুকেশ ছাবড়া পরিচালিত ‘দিল বেচারা’-র সংগীত পরিচালনা করেছেন এ আর রাহমান। এ ছবির প্রসঙ্গে এ আর রাহমান বলেন, ‘যখন মুকেশ ছাবড়া আমার কাছে আসে, তাঁকে দুদিনে চারটি গান দিয়েছিলাম। মুকেশ আমাকে সেদিন বলেছিলেন, “স্যার, অনেকে বলেছিল, রাহমানের কাছে যেয়ো না এবং আমাকে বিভিন্ন কথা শুনিয়েছে। ” এটা শোনার পর বুঝতে পারি, কেন ভালো সিনেমাগুলোয় কাজের প্রস্তাব পাই না। একটি বড় চক্র আমার বিরুদ্ধে কাজ করছে এবং না জেনেই ক্ষতি করছে।’

১৯৬৭ সালের ৬ জানুয়ারি বর্তমান এ আর রাহমান জন্মেছিলেন এ এস দিলীপ কুমার নামে। বাবা তামিল সংগীত পরিচালক আর কে শেখর এবং মা গৃহবধূ কস্তুরি দেবী। ১৯৮৮ সালে তিনি ও তাঁর পুরো পরিবার ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে। দিলীপ হয়ে যান এ আর রাহমান।

১৯৯২ সাল। তামিল পরিচালক মণিরত্নম একটি কফির বিজ্ঞাপনের জিঙ্গলসে সুর দিয়ে মাতিয়ে দেওয়া ২৫ বছর বয়সী ছেলেটিকে সুযোগ দিলেন তাঁর ‘রোজা’ ছবির সংগীত পরিচালনার। তামিল ভাষায় তৈরি ছবিটি হিন্দিতে ডাব করা হয়েছিল। দুই ভাষাতেই ‘রোজা’র সব কটি গান দারুণ হিট হয়। এরপর থেকে আর পেছনে তাকানো নয়, তাঁর দেওয়া সুর খুব কম ফ্লপ করেছে।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২০
 
themebaishwardin3435666