ঢাকা সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৪:৫০ অপরাহ্ন

ঈশ্বরদীতে বিজয় দিবসে মুক্তিযোদ্ধাকে মারধরের ঘটনায় মামলা

বার্তাকক্ষ
  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ২০ ডিসেম্বর, ২০১৯
সংঘর্ষের সময় পোষ্ট অফিস মোড় এলাকা থেকে তোলা ছবি।

ঈশ্বরদীতে বিজয় দিবসে শোভা যাত্রায় মুক্তিযোদ্ধাকে মারধরের ঘটনায় মামলা হয়েছে।

সোমবার (১৬ ডিসেম্বর) রাতে বীর মুক্তিযোদ্ধা আতিয়ার রহমান বিশ্বাসের লিখিত অভিযোগটি নিয়মিত মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করেছে ঈশ্বরদী থানা পুলিশ।

মামলায় উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি রফিকুল ইসলাম রাফি, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রাকিবুল হাসান রনি, পৌর যুবলীগের সভাপতি আলাউদ্দীন বিপ্লব, যুবলীগ সমর্থক মিলন চৌধুরী ও ছাত্রলীগ সমর্থক মুরাদ হোসেন টিটুরসহ ১৬জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত নামা ১০, ১৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা করে৷

ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাহাউদ্দীন ফারুকী জানান, লিখিত অভিযোগটি নিয়মিত মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করে ইতোমধ্যে মামলার তদন্ত কাজ শুরু হয়েছে।

এ বিষয়ে মামলার বাদী আতিয়ার রহমান বিশ্বাস বলেন, রাজনৈতিক শত্রুতার কারণে দীর্ঘদিন ধরেই আমাকে ও আমার ছেলে জুবায়ের বিশ্বাসকে (উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি) হত্যার হুমকি দিয়ে আসছিল । এই ব্যাপারে থানায় একাধিকবার অভিযোগ করা হয়েছে। কিন্তু একটি কুচক্রী মহলের ইন্ধনে তারা আমাকে ও আমার পরিবারের ওপর একের পর এক সন্ত্রাসী হামলা করছেন। গেল ১৬ ডিসেম্বর বিজয় উৎসবে গেলে আতর্কিতে আমার ওপর হামলা চালায়। এসময় আমার চিৎকার শুনে এক বাদাম বিক্রেতা ছুটে আসলে তাঁকেও তারা বেধরক মারধর করে।

এর আগে বিজয় দিবস উপলক্ষে সোমবার পৌরসভা চত্বর থেকে আনন্দ র‌্যালি করে কাউন্সিলর, কর্মকর্তা ও কর্মচারী। এ সময় ডিলুর পক্ষে তাঁর ছেলে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শিরহান শরিফ তমালের নেতৃত্বে যুবলীগ, ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা র‌্যালি বের করে। দুই গ্রুপ মুখোমুখি হলে প্রথমে কথা কাটাকটি পরে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। দুই পক্ষের নেতাকর্মীরা ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666
%d bloggers like this: