ঢাকা রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১০:৫৩ অপরাহ্ন

ঈশ্বরদীতে ভাড়া নিয়ে তর্কের জেরে চলন্ত বাস থেকে যাত্রীকে ফেলে হত্যা

বার্তাকক্ষ
  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ২০ ডিসেম্বর, ২০১৯
নিহত সুমন।

ঈশ্বরদীতে ভাড়া নিয়ে বাকবিতণ্ডার জের ধরে চলন্ত গাড়ি থেকে ফেলে এক যাত্রীকে চাপা দিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার (১৯ ডিসেম্বর) রাত ৮টার দিকে পাকশী লালন শাহ সেতুর সংলগ্ন গোলচত্বর এলাকায় সনি পরিবহনের একটি বাসে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের নাম সুমন (৪০)। তিনি উপজেলার পাকশী ইউনিয়নের ঝাউতলা এলাকার মৃত মজিবর রহমানের ছেলে।

নিহতের চাচাতো ভাই লিটন জানান, তিনি ব্যক্তিগত কাজে মেহেরপুর গাংনী যান। বৃহস্পতিবার গাংনী থেকে সুমন সনি গাড়িযোগে বাসায় ফিরছিলেন। পথে সুমনের সঙ্গে ভাড়া নিয়ে পরিবহনের সহকারীর বাকবিতণ্ডা হয়।

তিনি জানান, পরে এক পর্যায়ে গাড়ির ভিতরেই সুমনকে মারধর করে পরিবহনের সহকারী। এ ঘটনা সুমন মোবাইল ফোনে তার স্বজনদের অবহিত করেন। এরই মধ্যে গাড়িটি লালন শাহ সেতুর এসে পৌঁছে।

তিনি আরও জানান, এসময় চালকের সহকারীরা তাকে নামতে বাধা দেন এবং তাঁকে নিয়েই গাড়িটি চলতে শুরু করে। এসময় তিনি উচ্চস্বরে কথা বললে গাড়ির গতি কমিয়ে তাকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। এতে ওই বাসের নিচে চাপা পরে সুমন। পাকশী পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখান থেকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নেওয়ার পথে তাঁর মৃত্যু হয়।

পাকশী হাইওয়ে পুলিশের ট্রাফিক সার্জেন্ট আরিফুল ইসলাম বলেন, ঘটনাস্থলের পাশের ভবনে থাকা সিসিটিভি ফুটেজ দেখে বাসটি শনাক্ত করা গেছে। চালক ও তাঁর সহকারীরা গ্রেফতারের জন্য মাঠে নেমেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666
%d bloggers like this: