ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ১১:০১ পূর্বাহ্ন

ঈশ্বরদীতে ট্রেন দুর্ঘটনার রোধে আলোচনা সভা

বার্তাকক্ষ
  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৯
আয়োজিত আলোচনা সভায় অতিথিবৃন্দ।

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের পাকশী বিভাগের বৃহত্তম ঈশ্বরদী জংশনসহ বিভিন্ন জংশনে কর্মরত রেলওয়ে রানিং ষ্টাফ ও কর্মচারী সমিতির আয়োজনে বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) দুপুরে ‘ট্রেন দুর্ঘটনা নিরসনে করণীয়’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনায় বক্তারা বলেন, রানিং ষ্টাফরা হলেন ট্রেনের চালক ও সহকারী চালক। একটি ট্রেন পরিচালনায় এল এম ছাড়াও গার্ড , ষ্টেশন মাষ্টারসহ কয়েকটি বিভাগের ( পরিবহণ, প্রকৌশল, সিগন্যাল ও যান্ত্রিক) কর্মচারীদের প্রত্যক্ষ সংশ্লিষ্ঠতায় বিভাগীয় কন্ট্রোলের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রিত হয়। রানিং কর্মচারীরা রেলওয়ের নির্ধারিত বিধি বিধান মোতাবেক নিরাপদে ট্রেন প্রারম্ভিক ষ্টেশন হতে গন্তব্যে পৌঁছান।

একটি ট্রেন চলাচলের উপযোগী রাখে রেলপথ, ত্রুটিমুক্ত সচল রেলযান, সঠিক ও পূর্ণাঙ্গ সিগন্যালিং ব্যবস্থা, প্রশিক্ষিত দক্ষ অপারেশনাল কর্মচারী প্রয়োজন। নির্ধারিত রেলপথে লোকোমাষ্টার এক স্টেশন হতে অপর স্টেশনে-স্টেশন মাস্টারের অনুমতিপত্র ও সিগন্যাল ব্যতিত কখনই চলাচল করতে পারে না। সিগন্যালিং ব্যবস্থার উন্নতির ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য প্রস্তাবনা করা হয়। সেই সাথে রেলপথ সংস্কারের প্রয়োজনীয়তার কথাও তুলে ধরা হয়।

শহরের লোকসেড এলাকার সমিতির কার্যালয়ে ফজলুর রহমানের সভাপতিত্বে ও সহকারী লোকোমাস্টার আবু সাইদ হাসানের সঞ্চালনায় আলোচনায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন লোকো মাষ্টার ওয়ারেস আলী।

প্রধান অতিথি ছিলেন রেলওয়ে শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গির হোসেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রেসক্লাবের সভাপতি স্বপন কুমার কুন্ডু, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বাতেন, রানিং ষ্টাফ কর্মচারী সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির কার্যকরী সভাপতি বি.এম. শহীদুল ইসলাম, সহ-সভাপতি সেলিম হাওলাদার, উপদেষ্টা জাহিদুল আলম সনু, যুগ্ম সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান, সহ-সম্পাদক রবিউল ইসলাম, সাংগাঠনিক সম্পাদক আব্দুল হাকিম, রেলশ্রমিক লীগ নেতা আসলাম উদ্দিন ও কার্যকরী সদস্য আব্দুর রাজ্জাক প্রমুখ।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666