ঢাকা মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ০৪:০৭ অপরাহ্ন

ঈশ্বরদীতে শীতের বার্তা নিয়ে হাজির ভোরের শিশির

বার্তাকক্ষ
  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ১১ অক্টোবর, ২০১৯
মাকড়সার জালে জমেছে শিশির বিন্দু। মাঝদিয়া, ঈশ্বরদী। শুক্রবার, ১১ অক্টোবর।

ভোরের শিশির মুক্তার মতো আলো ছড়িয়ে জানান দিচ্ছে আসছে শীত। শিশির মাখা আশ্বিনের একরাশ সজীব স্বপ্ন নিয়ে প্রকৃতি এখন মানুষকে কাছে টানছে। কুয়াশা মাখা প্রকৃতি আর মাঠে মাঠে ফসলের সম্ভাবনার ঘ্রাণ, কৃষকের চোখে মুখে আনন্দের রেখা। উৎসব আর আনন্দের মাঝে নিমগ্ন খেটে খাওয়া মানুষ। এমন সময় প্রকৃতি দূর করে দেয় শত কষ্টের গ্লানি। প্রকৃতির অপরুপ ছবিতে সাজানো মাকরসার জালে আটকা পরেছে সাহিত্য প্রেমিরা।

ঈশ্বরদী উপজেলায় ভোরবেলা মাঠে ময়দানে ঘুরে দেখা যায়, ভেরের সূর্য। হালকা লালচে রংয়ে দিচ্ছে ঝিলিক। সূর্যের কিরণে মুক্তা মালা চোখে পড়ে। কুয়াশার প্রতিটি কনা মুক্তার মতো জ্বলছে। গ্রীষ্ম আর শীতের মধ্যে হেমন্ত যেন অপরূপ এক সেতুবন্ধন। ভাদ্রের মাঝামাঝি সন্ধ্যে থেকে ভোর পর্যন্ত শীতল হাওয়া আর বিকেলে ঝরতে থাকা ধুসর কুয়াশা জানাচ্ছে দুয়ারে শীত কড়া নাড়ছে। মাঠে প্রান্তরে ভোর বেলা শিশির মাখা ধানের ডলা জানান দিচ্ছে সম্ভাবনার বার্তা।

ঈশ্বরদী মহিলা কলেজের উপাধ্যক্ষ ইসমাইল হোসেন জানান, ঈশ্বরদীসহ উত্তরাঞ্চলে ভাদ্রের মাঝামাঝিতে ভোরবেলা দুর্বা ঘাসে শিশির দেখা যায়। কয়েক দিন থেকে ভোরে ফ্যানের প্রয়োজন হচ্ছে না তাই শীত শির শির করে দরজায় করা নাড়ছে।

সিনিয়র সাংবাদিক আলাউদ্দিন আহমেদ জানান, প্রকৃতি জানান দিচ্ছে শীতের আগমনীর বার্তা। শীত মানেই উৎসব। যেন পিঠা আর জামাই মেলা নিয়ে আসে শীতকাল। আবহাওয়া আর জলবায়ুর পরিবর্তনের ফলে এখন শীত ভাদ্রের মাঝেই উপলব্ধি করা যাচ্ছে। ভোর রাতে কাঁথা কম্বল গায়ে দিতে হয়। তাই বোঝা যায় শীত বেশি দূরে নেই।

আঞ্চলিক আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হেলাল উদ্দিন বলেন, গত কয়েক দিন থেকে ভোর বেলা হালকা কুয়াশা দেখা যাচ্ছে। আশ্বিন মাসের দিন যত যাচ্ছে শীতের আগমনী উপলব্ধি হচ্ছে। শীতের তীব্রতা কম বা বেশি হওয়ার বিষয়টি আরও মাস খানেক পরে নির্ণয় করা যাবে।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666
%d bloggers like this: