ঢাকা শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ০৫:০২ পূর্বাহ্ন

ঈশ্বরদীর দুই ক্লাবে অভিযান, জুয়া খেলার সরঞ্জামসহ আটক ১৪

বার্তাকক্ষ
  • প্রকাশিত: বুধবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
প্রতীকী ছবি

ঈশ্বরদীতে দুইটি ক্লাবে অভিযান চালিয়ে চৌদ্দ জুয়াড়িকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারের সময় তাঁদের কাছ থেকে ৪৩ হাজার ৭৯০ টাকা ও জুয়া খেলার সরঞ্জামও মিলেছে।

ক্লাবগুলো হলো- উপজেলার সাঁড়া গোপালপুর এলাকার সূর্ঘ সংঘ ও নতুন ক্লাব। বুধবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাতে এ অভিযান হয়।

তাঁরা হলেন- বাঘইল ইপিজেড গেট এলাকার এসকেন্দার সরকারের ছেলে তৌহিদুল ইসলাম (৩২), সাঁড়া গোপালপুর এলাকার আরশেদ মন্ডলের ছেলে শহিদুল ইসলাম (৪৫), মৃত মসলেম উদ্দিনের ছেলে শাকিল আহম্মেদ (৩৫), আব্দুল হামিদ প্রামাণিকের ছেলে সেলিম প্রামাণিক (৪৫), ইউনুস প্রামাণিকের ছেলে সাহাবুল প্রামাণিক (৩৮), মৃত জামরুল সরদারের ছেলে তুফান সরদার (৪২), মৃত আব্দুল বারীর ছেলে আহসান হাবিব (৫২), ইয়াছিন আলী মোল্লার ছেলে সাইফুল ইসলাম (৫২), মৃত মোকসেদ আলীর ছেলে তোজাম আলী (৫৫), নিজামুল আলমের ছেলে এনামুল আলম টিটু (৫০), মৃত আব্দুস সামাদের ছেলে বজলুর রহমান (৫৩), মৃত জিয়ারত আলীর ছেলে নাছির উদ্দিন ফারুকী (৫০), সাঁড়া গোপালপুর নতুনপাড়া এলাকার মৃত তফিজ উদ্দিন প্রামাণিকের ছেলে আলম প্রামাণিক (৫৩) ও মাঝদিয়া নতুনপাড়া এলাকার মৃত আফসার প্রামাণিকের ছেলে আতিয়ার রহমান (৫৫)।

অভিযানে অংশ নেয়া ঈশ্বরদী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) অরবিন্দ সরকার বলেন, আমরা এখনও নিশ্চিত নই যে, কারা এসব পরিচালনা করত। তদন্তের পর বিস্তারিত বলা যাবে। কারণ এতদিন এসবকে আমরা স্পোর্টিং ক্লাব বলেই জানতাম। ক্লাবের আড়ালে এমন কার্যক্রম চলছে বলে আমাদের ধারণা ছিল না।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাহাউদ্দীন ফারুকী বলেন, সম্প্রতি সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালায় থানা-পুলিশ। এ দুইটি ক্লাবে বেশ কিছুদিন যাবৎ গভীর রাত পর্যন্ত জুয়া খেলা চলত। এতে অংশ নিয়ে অনেকে নিঃস্ব হয়েছেন। স্থানীয়দের এমন অভিযোগের কারণে অভিযান চালানো হয়। চৌদ্দজনকে গ্রেফতারের সময় কয়েকজন পালিয়ে যান।

তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666