ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ০৯:০১ পূর্বাহ্ন

ঈশ্বরদীতে শিক্ষার্থীদের মারধর, গাড়ি ভাংচুর

বার্তাকক্ষ
  • প্রকাশিত: বুধবার, ২৮ আগস্ট, ২০১৯
প্রাইভেট কার ভাঙচুর।

তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ঈশ্বরদীর বঙ্গবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী ও তাঁর গ্যাং কালচার দল ছাত্রদের মারধর এবং গাড়ি ভাঙচুর করেছেন।

বুধবার (২৮ আগস্ট) দুপুর আড়াইটার দিকে ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ ঘটনা ঘটে।

বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে, ক্লাসে দুষ্টুমি করায় নবম শ্রেণির ছাত্র শৈশবের সঙ্গে তাঁর কয়েকজন সহপাঠির বাকবিতণ্ডা হয়। তখন এ ঘটনার কথা শৈশব তার গ্যাং কালচার দলকে জানান। পরে শহরের নূরমহল্লা এলাকার রশিদের ছেলে রনির নেতৃত্বে ৮-৯ জন বহিরাগত যুবক ওই বিদ্যালয়ে প্রবেশ করে শিক্ষার্থীদের মারধর করেন। এ সময় তাঁরা শিক্ষার্থীদের লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। একপর্যায়ে দলের সদস্য বিদ্যালয়ের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম খানের একটি প্রাইভেট কার ভাঙচুর করে। খবর পেয়ে ঈশ্বরদী থানার পুলিশ সেখানে গিয়ে শিক্ষার্থীদের সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে।

বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী রেজাউল হাসান জানিয়েছেন, ‘বিনা কারণে অতর্কিত হামলা চালিয়েছে শৈশব। পরে কয়েকজন ছাত্র এগিয়ে গেলে সে তাদের স্থানীয় পরিচয় দিয়ে শাসায় ও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। এমনকি এই বিদ্যালয়ের আসতে দেবে না বলে হুমকি দেয়।’

এ বিষয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাহাউদ্দীন ফারুকী বলেন, ‘খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে পৌঁছাতে পৌঁছাতে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। তবে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ থেকে এখনো কোনো লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি।’

মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সেলিম আক্তার বলেন, ‘আমাদের কাছে এমন একটি অভিযোগ এসেছে। ঘটনাটি খুবই ন্যাক্কারজনক। বিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের গায়ে হাত তুলা ও গাড়ি ভাংচুর করা কোন ক্রমেই মেনে নেয়া হবে না। আমরা থানার সাথে কথা বলেছি বিষয়টি নিয়ে।

বঙ্গবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মনিরুজ্জাম বলেন, ‘এ ঘটনা সম্পর্কে তার জানা নেই। তবে এসব বিষয়েও তদন্ত চলছে।’

এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত শিক্ষার্থী শৈশবের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666
%d bloggers like this: