ঢাকা শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৩:০৫ অপরাহ্ন

ঈশ্বরদীতে যুবককে তুলে নিয়ে হত্যার চেষ্টা

বার্তাকক্ষ
  • প্রকাশিত: রবিবার, ২১ জুলাই, ২০১৯
ঈশ্বরদীর ম্যাপ

ঈশ্বরদীতে এক যুবকে হাত-পা বেঁধে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার (২০ জুলাই) গভীর রাতে উপজেলার মুলাডুলি ইউনিয়নের ঢুলটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ওই যুবকের নাম সেতু ইসলাম (২১)। সে ঢুলটি গ্রামের মৃত আব্দুর গফুর প্রামাণিকের ছেলে। তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে কী কারণে তাকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে, সে বিষয়ে পুলিশ নিশ্চিত হতে পারেনি।

সেতুর পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, ঈশ্বরদী-পাবনা সড়কের মল্লিক এগ্রো ফুড ইন্ডাস্ট্রিজ সামনে থেকে একটি সবুজ রঙের সিএনজিতে থাকা দুই-তিনজন ব্যক্তি সেতুকে গাড়িতে তুলে নেয়। গাড়িতে উঠিয়ে সেতুর হাত-পা-চোখ বাঁধা হয়। এরপর ঢুলটি এলাকায় রতনের চালের গুদামে নিয়ে বস্তায় ভরে তাঁকে মেরে ফেলার উদ্দেশ্যে নির্যাতন চালানো হয়। এতে জড়িত ছিল প্রতিবেশী আব্দুর রহমানের ছেলে রতন ও তার লোকজন। মারধরের এক পর্যায়ে সেতু জ্ঞান হারিয়ে ফেললে ওই মৃত ভেবে রাস্তার পাশে একটি জঙ্গলে ফেলে যায় তারা। রোববার (২১ জুলাই) ভোরে জঙ্গলের পাশ দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় এক রিকশাচালক গোঙানির শব্দ শুনে তাঁকে দ্রুত উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

সেতুর মা শাহিদা বেগম জানায়, ‘তাঁর ছেলেকে হত্যা করে সিএনজিতে নিয়ে লাশ গুম করার উদ্দেশ্য ছিল।’

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাহাউদ্দীন ফারুকী বলেন, ‘খবর পাওয়ার পরই পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে এবং ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এঘটনায় সেতুর মা বাদী হয়ে ১ জনের নাম উল্লেখ ও পাঁচ-ছয় জনকে অজ্ঞাত আসামি করে থানায় একটি হত্যা চেষ্টার মামলা দায়ের করেন।’

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666
%d bloggers like this: