ঢাকা শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৫৩ অপরাহ্ন

নর্থ বেঙ্গল পেপার মিলের জমি পাচ্ছে রূপপুর

বার্তাকক্ষ
  • প্রকাশিত: বুধবার, ১৭ জুলাই, ২০১৯
নর্থ বেঙ্গল পেপার মিল। আগের ছবি

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের নিরাপত্তা কাজে ব্যবহার হবে ২০০২ সালে বন্ধ থাকা নর্থ বেঙ্গল পেপার মিলের জমি। প্রতীকী মূল্যে পেপার মিলটির ১০০ একর জমি হস্তান্তর করতে শিল্প মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিয়েছে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়। ১০০১ টাকা মূল্যে জমিটি পাওয়ার আশা করছে এ মন্ত্রণালয়। তবে শিল্প মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, নর্থ বেঙ্গল পেপার মিলের দায়-দেনা রয়েছে ৪৭৫ কোটি টাকা। দায়-দেনার সুরাহা না করে জমি হস্তান্তর করতে পারছে না শিল্প মন্ত্রণালয়।

ঈশ্বরদীতে ১৩৩ দশমিক ৫৪ একর জমির ওপর স্থাপিত নর্থ বেঙ্গল পেপার মিল ১৯৭৫ সালে উৎপাদন শুরু করে। ক্রমাগত লোকসানের মুখে ২০০২ সালে মিলটি বন্ধ হয়ে যায়। বন্ধের বছর মিলটির লোকসানের পরিমাণ ছিল ৩২৮ কোটি টাকা।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের নিরাপত্তা ও ভৌত সুরক্ষা ব্যবস্থা নিশ্চিত করার জন্য সরকার সেনাবাহিনীকে দায়িত্ব দিয়েছে। এজন্য সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের নিরাপত্তা ও ভৌত সুরক্ষা ব্যবস্থা সেল (এনএসপিসি) গঠন করা হয়েছে। রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের নিরাপত্তা বাহিনীর ফোর্স বেসের জন্য পাবনার ঈশ্বরদীতে রেললাইনের উত্তর পাশে নর্থ বেঙ্গল পেপার মিলের ১০০ দশমিক ৫১ একর জমি নির্বাচন করা হয়েছে। সাশ্রয়ী মূল্যের পরিবর্তে প্রতীকী মূল্যে এই জমি হস্তান্তরের অনুমতির জন্য প্রধানমন্ত্রী বরাবর সার-সংক্ষেপ পাঠায় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়। প্রধানমন্ত্রী তাতে নীতিগত অনুমোদন দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন ও তার কার্যালয়ের নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে ওই জমি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অনুকূলে প্রতীকী মূল্যে হস্তান্তরের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য গত ২২ মে শিল্প মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ করে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়।

ফিরতি চিঠিতে শিল্প মন্ত্রণালয় জানায়, নর্থ বেঙ্গল পেপার মিলের ১০০ দশমিক ৫১ একর জমি, স্থাপনাসহ অন্যান্য সম্পদের নির্ধারিত মূল্য ১ হাজার ৪০৫ কোটি ৩৫ লাখ টাকা। মিলটির দায়-দেনা আছে ৪৭৫ কোটি ৮৬ লাখ টাকা। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অনুকূলে জমি হস্তান্তর প্রক্রিয়া দ্রুত করার জন্য ওই দায়-দেনার বিষয়ে সুরাহা করা প্রয়োজন। এ পরিপ্রেক্ষিতে গত ১৬ জুলাই বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমানের সভাপতিত্বে বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছে।

ইয়াফেস ওসমান স্বাক্ষরিত ওই বৈঠকের জন্য তৈরি করা কার্যপত্রে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে নর্থ বেঙ্গল পেপার মিলের ১০০ দশমিক ৫১ একর জমি প্রতীকী মূল্য ১০০১ টাকায় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অনুকূলে হস্তান্তরের জন্য অনতিবিলম্বে শিল্প মন্ত্রণালয় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। মিলটির দায়-দেনা ব্যবস্থাপনা এবং পরিশোধের বিষয়ে কার্যকরী সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য অনতিবিলম্বে মন্ত্রী ইয়াফেস ওসমানের সভাপতিত্বে শিল্প মন্ত্রণালয়, অর্থ বিভাগ, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ, বাংলাদেশ ব্যাংক, সোনালী ব্যাংক, বিসিআইসি, বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশন, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্প ও এনএসপিসির সমন্বয়ে একটি উচ্চপর্যায়ের সভা আয়োজন করা হবে।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666
%d bloggers like this: