ঢাকা শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ০৭:৫০ অপরাহ্ন

রানা সরদারের নৌকায় আস্থা ভোটারদের

নিজস্ব প্রতিবেদন
  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২১
জমজমাট প্রচারণা, ভোটারদের দ্বারে দ্বারে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী এমদাদুল হক রানা। ছবিটি সম্প্রতি সাঁড়া ইউনিয়ন থেকে তোলা। ছবি: ঈশ্বরদী নিউজ টুয়েন্টিফোর

ঈশ্বরদী উপজেলার সাঁড়া ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী এমদাদুল হক রানা সরদারের এলাকায় চলছে নির্বাচনী উৎসব। উৎসবকে আরও প্রাণবন্ত করে তুলেছেন মুরুব্বি ও বয়জোষ্ঠরা, তাঁরা সকাল-সন্ধ্যা চষে বেড়াচ্ছেন ভোটের মাঠ।

এদিকে  ২৮ নভেম্বর তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠেয় ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রতীকেই আস্থা রয়েছে ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা গেছে।

সরেজমিন ঘুরে ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, সাঁড়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী এমদাদুল হক রানা সরদারের উপর শতভাগ আস্থা রয়েছে। তাঁরা মনে করেন, বিগত নির্বাচনে জয়ী হয়ে ভোটাররা এলাকার কাঙ্ক্ষিত উন্নয়ন পেয়েছে। তাই আবারও সাঁড়া উন্নয়নের স্বার্থে সাঁড়ায় নৌকা প্রতীককেই বেছে নেবেন ভোটাররা। বিদ্রোহী প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী জুয়েল চৌধুরী চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন ব্যক্তি নয় প্রতীক চশমা তার শেষ ভরসা।

কথা হয় ইউনিয়নের আসনা গ্রামের শিক্ষার্থী শাকিল রহমানের সঙ্গে। তিনি বলেন, রানা সরদারের জনপ্রিয়তা আকাশ ছোঁয়া। বিশেষ করে আমরা যারা তরুণ ভোটার, আমরা রানা চাচার বিকল্প ভাবতে পারিনা ইউনিয়নের উন্নয়নের স্বার্থে। তিনি বিপুল ভোটের ব্যবধানে জয়ী হবেন বলেও জানান ।

ইলশামারী গ্রামের অপর শিক্ষার্থী অনিকা ইসলাম বলেন, রানা ভাইকে ভোট দিতে পারব এটা ভাবতেই ভাল লাগছে। আমার জীবনের প্রথম ভোটটি ভালবাসার রানা ভাইকে দিয়েই স্মরণীয় করে রাখতে চাই।

ঝাউদিয়া গ্রামের প্রবীণ ব্যক্তি আলি আজম বলেন, ইউনিয়নবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করছেন তাকে এ ইউনিয়ন থেকে ৮০ থেকে ৮৫ ভাগ ভোট নৌকা প্রতীকে দেওয়ার জন্য।

সাঁড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জমসেদ আলী বলেন, এ ইউনিয়নের মানুষ দলমতের ঊর্ধ্বে থেকে প্রতীকের চেয়েও ব্যক্তি রানাকে বেশি গুরুত্ব দিয়ে জয়ী করবে নৌকা প্রতীককে।

তবে তেমন একটা প্রচারণায় নেই বিদ্রোহী প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী জুয়েল চৌধুরীর। সাঁড়া কিছু এলাকায় পোস্টার দেখা গেলেও সাহেবনগর, সেখেরচক, গোপালপুর, মাজদিয়া গ্রামে পোস্টারের দেখা নেই। প্রচার মাইক থেকেও প্রচারণা নেই বললেই চলে।

বিদ্রোহী প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী জুয়েল চৌধুরী অভিযোগ করে বলেন, নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা আমার প্রচার প্রচারণায় বাধা দিচ্ছেন। আমার সমর্থকদের ওপর হামলা চালাচ্ছেন। নিরপেক্ষ ভোট হলে সাঁড়াবাসী চশমা প্রতীককেই বেছে নেবে বলেও দাবি করেন তিনি।

এদিকে, আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী এমদাদুল হক রানা সরদার নির্বাচিত হলে সাঁড়াকে নতুন প্রজন্মের জন্য একটি শ্রেষ্ঠ বাসযোগ্য ইউনিয়ন হিসাবে গড়ে তোলার ঘোষণা দিয়ে বলেন, প্রধানমন্ত্রী আমাকে নৌকা দিয়ে পাঠিয়েছেন আবারও আপনাদের সেবা করার জন্য। আপনারা ২৮ নভেম্বর নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে আমাকে জয়ী করুন আমি আপনাদের পাশে থাকব সব সময়।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666