ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ১২:০৪ অপরাহ্ন

ঈশ্বরদীতে স্কুলছাত্রীকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেপ্তার- ১

নিজস্ব প্রতিবেদন
  • প্রকাশিত: সোমবার, ৩০ মার্চ, ২০২০
অভিযুক্ত জাহিদ হাসান।

ঈশ্বরদীতে এক স্কুলছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত জাহিদ হাসান (২০) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সে মুলাডুলি ইউনিয়নের শেখপাড়া গ্রামের নিজাম উদ্দিনের ছেলে, পেশায় কাঠমিস্ত্রী।

জানা যায়, গেল ২৭ মার্চ সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার মুলাডুলি ইউনিয়নের গোয়াল বাথান গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। রোববার (২৯ মার্চ) রাতে ওই কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে দুই যুবকের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে থানায় মামলা করে। সোমবার (৩০ মার্চ) দুপুরে এ মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে এক যুবককে আদালতের মাধ্যমে পাবনা কারাগারে পাঠায় পুলিশ।

পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শিশুটি ওই গ্রামের একটি বাড়িতে নতুন বউ দেখার জন্য যায়। সেখান থেকে রাত ৮টার দিকে বাড়ি ফেরার পথে অজ্ঞাতপরিচয় কয়েকজন তাঁর মুখ চেপে ধরে। এতে তিনি অচেতন হয়ে পড়েন। ওই সময় পাশের আম খেতে নিয়ে ধর্ষণ করেন দুই যুবক। পরে ভোরে তাঁকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে ঈশ্বরদী উপজেলা কমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার আরও অবনতি হলে তাকে রাত সাড়ে ১০টার দিকে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। ওই শিশু স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ে পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ে।

আজ সোমবার মুঠোফোনে ওই শিশুর বাবা বলেন, ‘ঘটনার পর থেকে তাঁদের পরিবারের লোকজন আপস-মীমাংসা করার জন্য চাপ দিচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে বেশি বাড়াবাড়ি করলে তাঁরা আরও বড় ধরনের ক্ষতি করবে বলে হুমকি দিচ্ছে।’

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আসমা খান বলেন, ‘মেয়েটিকে দেখেই বোঝা যাচ্ছিল তার সঙ্গে ধস্তাধস্তি করা হয়েছে। আলামত নষ্ট হতে পারে আশঙ্কায় দ্রুত তাকে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।’

ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বাহাউদ্দীন ফারুকী বলেন, ‘খবর পেয়ে আমি দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে মেয়েটির অবস্থা দেখে এসেছি। চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী তাকে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত এক যুবকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।’

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666
%d bloggers like this: