ঢাকা শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ০২:৩১ পূর্বাহ্ন

গাড়িবহর দেখে দৌড়, বাড়িতে গিয়ে খাদ্যসামগ্রী দিলেন ঈশ্বরদীর ইউএনও

মিনহাজুল ইসলাম, নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত: সোমবার, ৩০ মার্চ, ২০২০
হতদরিদ্রদের বাড়িতে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন ইউএনও।

জিপ, পিকআপসহ একসাথে কয়েকটি গাড়িবহর গলির রাস্তা দিয়ে ঢুকতেই দৌড়ে যে যার ঘরে চলে গেলেন। এরপর বাড়িতে ঢুকলেন ঈশ্বরদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শিহাব রায়হানসহ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

কর্মকর্তাদের দেখে ভয়ে ভয়ে বলে ওঠলেন, ‘স্যার আমি কিছু করি নাই। কাজ-কাম নাই। ঘর থেকে বাইর হই না। বাড়ির সামনেই দাঁড়াইছিলাম।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশ্বস্ত করলেন, বললেন, ‘চিন্তার কিছু নেই। আপনারা বাড়ি থেকে বের হবেন না। নিয়ম মেনে ঘরে থাকুন। আমরা বাড়িতেই আপনাদের খাবার সামগ্রী পৌঁছে দেব ইনশাআল্লাহ।’

এসময় বস্তাভর্তি চাল তুলে দিলেন। এসব পেয়ে দারুণ খুশি শহরের ভেলুপাড়া এলাকার রিক্সাচালক ইদ্রিস মিয়া (৬৭)। তাঁর মতোই খাদ্যসামগ্রী পেয়ে দরিদ্র গৃহকর্মী আছিয়া বেগম (৪৫), রশিদা বেগমসহ (৫৫) অন্যান্যরা খুব খুশি।

খাদ্যসামগ্রী পেলেন এক দরিদ্র গৃহকর্মী।

রিক্সাচালক ইদ্রিস মিয়া বলেন, ‘আজ তিনদিন ধরে কোনো কামাই রোজগার নাই। সবকিছু বন্ধ। হাতে কয়েকটা টাকা আছিল, এর মধ্যেই সব শেষ। খুব চিন্তার মধ্যে আছিলাম। ইউএনও সাবের চাল পাইয়া মনে খুব শান্তি পাইলাম। এক-দুইবেলা করে খেলে ৫-৬ দিন চলা যাবো।’

হতদরিদ্রদের বাড়িতে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন ইউএনও।

রোববার (২৯ মার্চ) বিকেল ও রাতে বিভিন্ন এলাকায় কর্মহীন মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেন তিনি।

ইউএনও শিহাব রায়হান বলেন, ‘করোনাভাইরাসের কারণে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও লোকসমাগম বন্ধ থাকায় নিম্ন আয়ের মানুষগুলো কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। আমরা সরকারের পক্ষ থেকে দরিদ্র মানুষের মাঝে এসব খাদ্য বিতরণ শুরু করেছি। এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।’

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, করোনা সংক্রমণ মোকাবিলায় তাৎক্ষণিক মানবিক সহায়তা হিসেবে দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় উপজেলায় ২০ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দিয়েছে। বরাদ্দ পাওয়ার পরপরই শনিবার বিকাল থেকে খাদ্য সহায়তা প্রদান শুরু করেছেন প্রশাসনের কর্মকর্তাসহ জনপ্রতিনিধিরা ।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666
%d bloggers like this: