ঢাকা বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০১:২৭ অপরাহ্ন

ঈশ্বরদীতে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনিয়ম, অসদাচরণের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদন
  • প্রকাশিত: রবিবার, ২ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
আব্দুল মজিদ বাবলু মালিথা। ফাইল ছবি

ঈশ্বরদী উপজেলার সলিমপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ বাবলু মালিথার বিরুদ্ধে বিভিন্ন প্রকল্পে অনিয়ম, অসদাচরণের অভিযোগ এনেছেন ওই ইউপির ১১ সদস্য।

এ ঘটনায় শনিবার (০২ ফেব্রুয়ারি) সকালে পাবনা জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কাছে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব এনে ওই ইউপি সদস্যরা একটি লিখিত অভিযোগ দেন।

ইউএনও-এর কাছে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব এনে ওই ইউপি সদস্যরা একটি লিখিত অভিযোগ দেন।

অভিযোগে বলা হয়, উপজেলা দপ্তর থেকে উন্নয়নমূলক কাজের জন্য ২০১৮-১৯ অর্থ বছরের রাজস্ব খাতের ১ ভাগের টাকা বরাদ্দ করা হয়েছিল। যা চেয়ারম্যান বাবলু মালিথা কোন উন্নয়ন কাজ না করে ভূয়া নামে প্রকল্প দেখিয়ে কাগজপত্র দাখিল করে অর্থ আত্মসাৎ করেছেন।

মিরকামারী গ্রামে চেয়ারম্যান বাবলুর নিজের বাড়ির সামনে রাজস্ব খাত থেকে ৭ লাখ ৭৪ হাজার টাকার ব্যয়ে কংক্রিট ঢালাইয়ের রাস্তার প্রকল্প গ্রহণ করা হয়। সে টাকা সম্পূর্ণ অবৈধভাবে আত্মসাৎ করে পরবর্তীতে সে রাস্তা ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগের (এলজিডি) প্রকল্প গ্রহণ করে এ রাস্তাটি নির্মাণ করে। যা পুরোপুরি অনিয়ম। এছাড়াও ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে গৃহহীনদের জন্য যে ঘর বরাদ্দ পাওয়া গিয়েছিল সে ঘরগুলো চেয়ারম্যান কোন ইউপি সদস্যের সঙ্গে আলোচনা না করে নিজের আত্মীয়স্বজনের মধ্যে বরাদ্দ করে ক্ষমতার অপব্যবহার করেছেন।

২০১৬ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত চেয়ারম্যান এনজিও কর্মীদের দ্বারা যে গৃহ ভবন কর/ট্যাক্স আদায় করেছেন তার পরিমাণ ২৭ লাখ টাকা। সে অর্থ দিয়ে ইউনিয়নের কোন উন্নয়ন কাজ না করে নিজে আত্মসাৎ করেছেন। সেই সঙ্গে ২০১৬ সাল থেকে আজ অবধি পর্যন্ত ট্রেড লাইন্সেস বাবদ আদায়কৃত অর্থের পরিমাণ চেয়ারম্যানের কাছে জানতে চাইলে তিনি তাদের সঙ্গে উগ্র ব্যবহার করেন।

অভিযোগে আরও বলা হয়, ৩০ মাস ধরে তাঁদের সম্মানী ভাতা দেওয়া হচ্ছে না। ভাতা চাইলে চেয়ারম্যান খারাপ আচরণ করেন।

তবে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ বাবলু মালিথা তাঁর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের কোনো ভিত্তি নেই দাবি করে বলেন, ‘কেউ কেউ ইউপি সদস্যদের ভুল বুঝিয়ে এসব অভিযোগ করিয়েছেন।’

ইউএনও শিহাব রায়হান বলেন, ‘চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনিয়ম-দুর্নীতির সত্যতা পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666
%d bloggers like this: