ঢাকা শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৩:১১ অপরাহ্ন

ঈশ্বরদী পৌর নির্বাচনে ভোট যুদ্ধ আজ, নির্বাচনি এলাকায় কঠোর নিরাপত্তা

নিজস্ব প্রতিবেদন
  • প্রকাশিত: শনিবার, ১৬ জানুয়ারী, ২০২১
ছবি: ঈশ্বরদীনিউজটুয়েন্টিফোর.নেট গ্রাফিক্স টিম

আজ শনিবার দ্বিতীয় দফায় নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলবে ঈশ্বরদী পৌরসভায়। সকাল ৮ থেকে শুরু হয়ে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ব্যালট পেপারের মাধ্যমে ভোটাররা তাদের নিজেদের রায় জানাবে।

মহামারীর মধ্যে —স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করে’নির্বাচনের সব ধরনের প্রস্তুতি শেষ হয়েছে বলে জানিয়েছে ঈশ্বরদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার পিএম ইমরুল কায়েস।

এই কর্মকর্তা জানান, নির্বাচনকে ঘিরে তিন স্তুরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে প্রশাসন। অবাধ ও শান্তিপূর্ন নির্বাচনে ৯ জন নির্বাহী ম্যাজিষ্টেট ও একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট। নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকছে প্রয়োজনীয় সংখ্যক র্যা ব, তিন প্লাটুন বিজিবি ও ২৫০ জন পুলিশ। এছাড়াও ভোট কেন্দ্রে আইনশৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্বে পুলিশের সঙ্গে থাকছে ১৭১ জন আনসার ও গ্রাম পুলিশের সদস্য।

শুক্রবার বিকেলে ভোট কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে ব্যালট বক্সসহ অন্যান্য নির্বাচনী উপকরণ। দুপুর ২টার পর নির্বাচনী কার্যালয় থেকে প্রিজাইডিং অফিসার ও সহকারি প্রিজাইডিং অফিসারের কাছে এ সব মালামাল বুঝিয়ে দেওয়া হয়। নির্বাচনী মালামালের মধ্যে রয়েছে- ব্যালট বাক্স, অমোচনীয় কালি, সিল, কলমসহ অন্যান্য উপকরণ। আজ শনিবার সকালে ৬টার মধ্যে সব ভোটকেন্দ্র ব্যালট পেপার পৌঁছে দেওয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে ভোটের স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়ে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়া হবে। ভোটকেন্দ্রে ভোটারদের জন্য থাকবে হ্যান্ড স্যানিটাইজার। ভোটগ্রহণ কর্মকর্তার জন্য থাকবে মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, হ্যান্ড গ্লাভস।

সেই সঙ্গে ভোটারের লাইনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশনা রয়েছে বলে উল্লেখ করেন রিটানিং অফিসার পিএম ইমরুল কায়েস।

আজকে এই নির্বাচনে দেশের বৃহৎ দুটি রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ এবং বিএনপির মেয়র প্রার্থীসহ তিনজন মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এদের মধ্যে আওয়ামী লীগে মনোনীত প্রার্থী নৌকা প্রতীক নিয়ে ইছাহক আলী মালিথা, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে রফিকুর ইসলাম নয়ন ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী হাত পাখা প্রতীক নিয়ে মাসুম বিল্লাহ মেয়র পদে ভোটযুদ্ধে অংশগ্রহণ করছেন।

সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৪৯ জন ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৭ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সব মিলিয়ে ভোটযুদ্ধে নেমেছেন ৫৬ জন প্রার্থী।

এদিকে নির্বাচন উপলক্ষে ভোট গ্রহণের নির্ধারিত দিনের পূর্ববর্তী মধ্যরাত ১৫ জানুয়ারি রাত ১২টা থেকে ১৬ জানুয়ারি রাত ১২টা পর্যন্ত ঈশ্বরদী শহরে ট্রাক ও পিকআপ ভ্যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। এছাড়া ১৪ জানুয়ারি রাত ১২টা থেকে ১৭ জানুয়ারি সকাল ৬টা পর্যন্ত মোটরসাইকেল চলাচল বন্ধ থাকবে।

তবে রিটার্নিং অফিসার কর্তৃক অনুমোদিত এজেন্ট এবং পর্যবেক্ষকদের জন্য এ নির্দেশনা শিথিলযোগ্য। এছাড়া সাংবাদিক, নির্বাচন কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তা-কর্মচারী, আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী, অ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিস, বিদ্যুৎ, গ্যাসসহ ইত্যাদি কার্যক্রমে ব্যবহৃত যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা প্রযোজ্য হবে না।

পৌরসভার মোট ভোটার রয়েছে ৫৫ হাজার ৫৬৮ জন। এর মধ্যে পুরুষ ২৭ হাজার ২৪১ জন ও নারী ভোটার ২৮ হাজার ৩২৭ জন। ভোটকেন্দ্র রয়েছে ১৯টি এবং বুথ সংখ্যা ১৫২টি।

ঈশ্বরদী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ ফিরোজ কবির জানান, পৌরসভার ১৯ ভোটকেন্দ্রের সবকটি গুরুত্বপূর্ণ (ঝুঁকিপূর্ণ) বলে মনে করা হচ্ছে। এরমধ্যে ৪টি কেন্দ্র অধিক ঝুঁকির বিবেচনায় রাখা হয়েছে। কেন্দ্র ঝুঁকির বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে জেলা পুলিশ প্রাথমিক কৌশল নির্ধারণ করেছে। এতে ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রের ধরণ অনুযায়ী চার থেকে পাঁচজন অস্ত্রধারী পুলিশ সদস্য নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করবেন। তিনি বলেন, সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি মাথায় রেখে নিরাপত্তা ব্যবস্থা ঢেলে সাজানো হয়েছে। নির্বাচনে যারা দায়িত্বে থাকবেন তারা চৌকস ভূমিকা পালন করবেন। নির্বাচনের আগে পুলিশ সদস্যদের বিশেষ প্রশিক্ষণও দেয়া হয়েছে।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666