ঢাকা রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ০৫:০১ অপরাহ্ন

ঈশ্বরদীর মুক্তিযোদ্ধা সেলিম হত্যা: মূল পরিকল্পনাকারী গ্রেফতারে সাত দিনের আল্টিমেটাম

ঈশ্বরদীনিউজ২৪.নেট, প্রতিবেদন
  • প্রকাশিত: বুধবার, ২৪ এপ্রিল, ২০১৯
তিন ঘন্টার গণ-অনশনে অংশ গ্রহণকারীদের জুস পান করিয়ে অনশন ভঙ্গ করান পৌর মেয়র আবুল কালাম আজাদ মিন্টু।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে নিহত মুক্তিযোদ্ধার সন্তান তানভীর রহমান তন্ময় বলেছেন,মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আপনি আপনার বাবা হত্যার বিচার যদি করতে পারেন, নুশরাত হত্যার রহস্য ও মুল-পরিকল্পনাকারী যদি বের হয় তবে আমার বাবা হত্যার বিচার কি পাবো না? প্রায় তিন মাসের বেশি অতিবাহিত হওয়ার পরও মুক্তিযোদ্ধা হত্যার মুল পরিকল্পনাকারী কেন গ্রেফতার হয় না। তাই আপনার স্বাধীন বাংলাদেশের মাটিতে একটি মুহুর্ত আর নিঃশ্বাস নিতে ইচ্ছে করে না।           

ঈশ্বরদীর পাকশী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নিহত মুক্তিযোদ্ধা মুস্তাফিজুর রহমান সেলিমের (৬৭) হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবিতে গণ-অনশন কর্মসূচি অনুষ্ঠানে আবেগ-আপ্লুত হয়ে নিহত মুক্তিযোদ্ধার  ছেলে এ কথাগুলো বলেন।

তিনি আরও বলেন, ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধুর ডাকে সারা দিয়ে সেদিন মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলেন আমার বাবা। লড়াই সংগ্রাম করে যে যোদ্ধা স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ উপহার দিয়েছেন,বাড়ির দরজার সামনে গুলি খেয়ে মরতে হয় সেই বীর যোদ্ধার। এই বিচারটুকু চাওয়ার অধিকার কি আমাদের নেই, মুক্তিযোদ্ধা হত্যার বিচারটুকু কি দেখার সৌভাগ্য হবে?

তিনি প্রশাসনের কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে বলেন, ছোট ভাইদের শুধু ধরা হচ্ছে। মেজ ভাই-বড় ভাইদের ধরা,হচ্ছে না। এসময় বড় বড় রাঘব বোয়াল যারা এই হত্যার মূল-পরিকল্পনাকারী তাদের দ্রুত আইনের আওতায় নিয়ে আসার জন্য সাত দিনের আল্টিমেটাম দেন তিনি। নতুবা ঈশ্বরদীর সাথে রেল-সড়ক যোগাযোগ বন্ধ করে দেওয়ার হুমকী দেওয়া হয়।                

মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ঈশ্বরদী কমান্ডের আয়োজনে বুধবার (২৪ এপ্রিল) ১০টা থেকে ১টা পর্যন্ত শহরের মাহবুব আহমেদ খান স্মৃতি মঞ্চে এই অনশন কর্মসূচি পালন করা হয়।

মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা চান্না মন্ডলের সভাপতিত্বে এই অনশন কর্মসূচিতে সেলিমের হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার দাবিতে বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা নুরুজ্জামান বিশ্বাস, মুক্তিযোদ্ধা নায়েব আলী বিশ্বাস, পৌর মেয়র আবুল কালাম আজাদ মিন্টু, আওয়ামী লীগ নেতা ইছাহক আলী মালিথা, মুক্তিযোদ্ধা হাবিবুল ইসলাম হব্বুল, মুক্তিযোদ্ধা জাহাঙ্গীর আলম, নিহত মুক্তিযোদ্ধা সেলিমের ছেলে তানভীর রহমান তন্ময় প্রমুখ।

তিন ঘন্টার গণ-অনশনে অংশ গ্রহণকারীদের জুস পান করিয়ে অনশন ভঙ্গ করান পৌর মেয়র আবুল কালাম আজাদ মিন্টু।

চলতি বছরের ৬ ফেব্রুয়ারি রাত ৯ টার দিকে উপজেলার পাকশী রূপপুর বিবিসি বাজার সংলগ্ন এলাকায় নিজ বাড়ির সামনে আততায়িদের গুলিতে নিহত হন মুক্তিযোদ্ধা সেলিম।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666