ঢাকা শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৩:৪৮ অপরাহ্ন

ঈশ্বরদীতে সংরক্ষিত মহিলা ও সাধারণ কাউন্সিলর বিজয়ী হলেন যারা (ফলাফলসহ)

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত: রবিবার, ১৭ জানুয়ারী, ২০২১
ছবি: ঈশ্বরদীনিউজটুয়েন্টিফোর.নেট গ্রাফিক্স টিম

ঈশ্বরদী পৌরসভা নির্বাচনে সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর হিসেবে ১, ২ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ড থেকে জবাফুল প্রতীক নিয়ে ফরিদা ইয়াসমিন ৬ হাজার ৭১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তাঁর নিকটতন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী জেসমিন জাহান আনারস প্রতীক নিয়ে ২ হাজার ৫৬৫ ভোট পেয়েছে।

৪, ৫ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ড থেকে চশমা প্রতীক নিয়ে রহিমা খাতুন ৬ হাজার ৭৭৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী শামীমা আক্তার আনারস প্রতীক নিয়ে ৪ হাজার ৬৪০ ভোট পেয়েছে ।

৭, ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ড থেকে চশমা প্রতীক নিয়ে ফিরোজা বেগম ৪ হাজার ৬৩১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী শাহানাজ বেগম আনারস প্রতীক নিয়ে ৩ হাজার ১৭৪ ভোট পেয়েছে। অপর প্রার্থী জুবাইদা নাছরিন অটোরিক্সা প্রতীক নিয়ে ১ হাজার ৭৭১ ভোট পেয়েছে।

সাধারণ কাউন্সিলর হিসেবে ১ নম্বর ওয়ার্ড থেকে উট পাখি প্রতীক নিয়ে কামাল উদ্দিন ১  হাজার ৯৫৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী শেখ মাহাবুবু আকবর পাঞ্জাবি প্রতীক নিয়ে ৬৪৪ ভোট পেয়েছে। অপর প্রার্থী আব্দুর রশিদ ব্রিজ প্রতীক নিয়ে ৪১১ ভোট পেয়েছে।

২ নম্বর ওয়ার্ড থেকে পাঞ্জাবি প্রতীক নিয়ে মনিরুল ইসলাম সাবু ৮৪৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আরিফুজ্জামান পানির বোতল প্রতীক নিয়ে ৮৪৩ ভোট পেয়েছে। অপর প্রার্থী রেজাউল করিম নান্টু উট পাখি প্রতীক নিয়ে ৬১০ ভোট পেয়েছে। আরেক প্রার্থী আবুল কালাম রনা ডালিম প্রতীক নিয়ে ১৬৯ ভোট পেয়েছে।

৩ নম্বর ওয়ার্ড থেকে পানির বোতল প্রতীক নিয়ে জাহাঙ্গীর আলম ১ হাজার ৯৭৫ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ফকরুল ইসলাম উট পাখি প্রতীক নিয়ে ১ হাজার ৪৫৪ ভোট পেয়েছে। অপর প্রার্থী ছবুর হোসেন সূর্ঘ প্রামানিক ডালিম প্রতীক নিয়ে ১৩২ ভোট পেয়েছে। আরেক প্রার্থী আব্দুল খালেক পাঞ্জাবি প্রতীক নিয়ে ৩৮ ভোট পেয়েছে। অন্য প্রার্থী মাহাবুল ইসলাম টেবিল ল্যাম্প প্রতীক নিয়ে ২৫ ভোট পেয়েছে।

৪ নম্বর ওয়ার্ড থেকে পানির বোতল প্রতীক নিয়ে আমিনুর রহমান ১ হাজার ৬১৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আবদুল মতিন উট পাখি প্রতীক নিয়ে ১ হাজার ২৮ ভোট পেয়েছে। অপর প্রার্থী ময়নুল ইসলাম ওরফে লাহিড়ী মিন্টু ডালিম প্রতীক নিয়ে ৪৭৭ ভোট পেয়েছে। আরেক প্রার্থী আবু শামা পাঞ্জাবি প্রতীক নিয়ে ২৩৭ ভোট পেয়েছে। অন্য প্রার্থী মাহাবুল ইসলাম টেবিল ল্যাম্প প্রতীক নিয়ে ২৫ ভোট পেয়েছে।

৫ নম্বর ওয়ার্ড থেকে ডালিম প্রতীক নিয়ে ওয়াকিল আলম ১ হাজার ৪৭৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী শাহানাজ পারভীন উট পাখি প্রতীক নিয়ে ১ হাজার ১৭৩ ভোট পেয়েছে। অপর প্রার্থী কামাল আশরাফী ব্ল্যাক বোর্ড প্রতীক নিয়ে ৯৮০ ভোট পেয়েছে। আরেক প্রার্থী আসলাম হোসেন পাঞ্জাবি প্রতীক নিয়ে ৪৯৮ ভোট পেয়েছে। অন্য প্রার্থী জাহিদ হোসেন পানির বোতল প্রতীক নিয়ে ১২০ ভোট পেয়েছে।

৬ নম্বর ওয়ার্ড থেকে উটপাখি প্রতীক নিয়ে আবুল হাশেম ২ হাজার ১৩৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী শওকত আলী পানির বোতল প্রতীক নিয়ে ২ হাজার ৪২ ভোট পেয়েছে। অপর প্রার্থী আমজাদ হোসেন পাঞ্জাবি প্রতীক নিয়ে ৪০ ভোট পেয়েছে।

৭ নম্বর ওয়ার্ড থেকে পাঞ্জাবি প্রতীক নিয়ে আব্দুল লতিফ মিন্টু ২ হাজার ৪৬৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সাজিদ মোর্শেদ খাঁন রুশো উট পাখি প্রতীক নিয়ে ১ হাজার ৫৪৪ ভোট পেয়েছে। অপর প্রার্থী বিপ্লব হোসেন বিপু ডালিম প্রতীক নিয়ে ৩১৫ ভোট পেয়েছে। অন্য প্রার্থী আনোয়ার হোসেন পানির বোতল প্রতীক নিয়ে ২১৬ ভোট পেয়েছে।

৮ নম্বর ওয়ার্ড থেকে উট পাখি প্রতীক নিয়ে আবু জাহীদ ৬৭৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সাঈদ হাসান ব্ল্যাক বোর্ড প্রতীক নিয়ে ৬৫৫ ভোট পেয়েছে। অপর প্রার্থী শফিকুল ইসলাম ডালিম প্রতীক নিয়ে ৩৫৫ ভোট পেয়েছে। অন্য প্রার্থী শরিফুল ইসলাম পাঞ্জাবি প্রতীক নিয়ে ৬১ ভোট পেয়েছে। অপর প্রার্থী রফিকুল হাসান টেবিল ল্যাম্প প্রতীক নিয়ে ১৮০ ভোট পেয়েছে। এছাড়াও পানির বোতল প্রতীক নিয়ে ২০২ ভোট পেয়েছে নুরুজ্জামান ইসলাম মালিথা।

৮ নম্বর ওয়ার্ড থেকে উট পাখি প্রতীক নিয়ে আবু জাহীদ ৬৭৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সাঈদ হাসান ব্ল্যাক বোর্ড প্রতীক নিয়ে ৬৫৫ ভোট পেয়েছে। অপর প্রার্থী শফিকুল ইসলাম ডালিম প্রতীক নিয়ে ৩৫৫ ভোট পেয়েছে। অন্য প্রার্থী শরিফুল ইসলাম পাঞ্জাবি প্রতীক নিয়ে ৬১ ভোট পেয়েছে। অপর প্রার্থী রফিকুল হাসান টেবিল ল্যাম্প প্রতীক নিয়ে ১৮০ ভোট পেয়েছে। এছাড়াও পানির বোতল প্রতীক নিয়ে ২০২ ভোট পেয়েছে নুরুজ্জামান ইসলাম মালিথা।

৯ নম্বর ওয়ার্ড থেকে ব্রিজ প্রতীক নিয়ে ইউসুফ আলী ১ হাজার ৭১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ফিরোজ আহমেদ উট পাখি প্রতীক নিয়ে ৭৩৮ ভোট পেয়েছে। অপর প্রার্থী আকরাম হোসেন পানির বোতল প্রতীক নিয়ে ৭৩৫ ভোট পেয়েছে। অন্য প্রার্থী দেলোয়ার হোসেন ডালিম প্রতীক নিয়ে ৫৫১ভোট পেয়েছে। অপর প্রার্থী রমজান আলী পাঞ্জাবি প্রতীক নিয়ে ২৬ ভোট পেয়েছে।

গতকাল শনিবার রাতে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তন কক্ষে আনুষ্ঠানিক ভাবে ঈশ্বরদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার পিএম ইমরুল কায়েস বেসরকারি ভাবে এ ফলাফল ঘোষণা করেন।

পৌরসভার মোট ভোটার  ৫৫ হাজার ৫৬৮ জন। এর মধ্যে পুরুষ ২৭ হাজার ২৪১ জন ও নারী ভোটার ২৮ হাজার ৩২৭ জন। ভোটকেন্দ্র ছিল ১৯টি এবং বুথ সংখ্যা ১৫২টি।

 

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666