ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ১১:২০ পূর্বাহ্ন

ঈশ্বরদীতে শিক্ষকের উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

বার্তাকক্ষ
  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০১৯
ঈশ্বরদীতে শিক্ষকের উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন।

উপজেলার চরমিরকামারী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু মোস্তফা কামালের উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষল সমিতি ঈশ্বরদী উপজেলা শাখা।

বৃহস্পতিবার (১৯ ডিসেম্বর) দুপুর ৩টায় উপজেলা পরিষদের সামনের সড়কে দেড় ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধন করা হয়।

বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি ঈশ্বরদী উপজেলা শাখার সভাপতি মাসুদ হামিদ রানার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক হেলাল উদ্দিনের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য দেন-উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি প্রকৌশলী কবির হোসেন, ঈশ্বরদী প্রেসকাবের সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক আব্দুল বাতেন, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি পাবনা জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক কমরেড আহসান হাবিব, বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি ঈশ্বরদী উপজেলা শাখার সভাপতি জমসেদ আলী, প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক আরিফুল ইসলাম আরিফ, সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক রকিবুল ইসলাম, সদস্য সুজাতা ইয়াসমিন, চরমিরকামারী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক শরিফুল ইসলাম শরীফ, অরণকোলা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক রেজাউল করিম সেলিম, চরমিরকামারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও অভিভাবক সমিতি (পিটিএ) সভাপতি এ.কে করিম, আইন সহায়তা কেন্দ্র (আসক) ফাউন্ডেশন ঈশ্বরদী পৌর কমিটির সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম শরীফ প্রমুখ।

মানববন্ধনে উপস্থিত শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দরা তাদের বক্তব্যে বলেন, একজন প্রধান শিকের উপর এ ন্যাক্কার জনক হামলা কখনই মেনে নেওয়া যায় না। আমরা এই ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আবু মোস্তফা কামালের উপর হামলায় জড়িতদের অবিলম্বে সনাক্ত করে ৭২ ঘন্টার মধ্যে শাস্তির আওতায় নিয়ে আসার জন্য শিক্ষক সমিতি আলটিমেটাম দেন। না হলে শিক্ষক সমিতি গোটা বাংলাদেশে অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতি সহ নানা কর্মসূচি ঘোষনা করতে বাধ্য হবে।

এসময় এ হামলার ঘটনায় বাংলাদেশ প্রথমিক শিক্ষক সমিতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) কাছে প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে একটি স্মারকলিপিও দেন।

প্রসঙ্গত গেল ১৬ ডিসেম্বর চরমিরকামারি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে অতিথি না করায় শিক্ষার্থীদের সামনেই প্রধান শিক্ষককে পিটিয়ে আহত করা হয়েছে।

জানা যায়, ছলিমপুর ইউনিয়নের চরমিরকামারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোস্তফা কামাল জাতীয় পতাকা উত্তোলনের জন্য মুক্তিযোদ্ধা মনিরুল ইসলাম মনসের খানকে এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান মকলেছুর রহমান মিন্টুকে প্রধান অতিথি করেন। এতে স্থানীয় সাবেক সংসদ সদস্য মঞ্জুর রহমান বিশ্বাসের পক্ষের লোকজন ক্ষিপ্ত হয়। প্রধান শিক্ষক মোস্তফা কামালকে শিক্ষার্থীদের সামনে বেদম প্রহার করে রক্তাক্ত করা হয়।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666
error: © স্বত্ব ঈশ্বরদী নিউজ টুয়েন্টিফোর