ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ০৫:৫৯ অপরাহ্ন

ঈশ্বরদীতে অজ্ঞাত লাশের পরিচয় সনাক্ত : গ্রেপ্তার ৪

বার্তাকক্ষ
  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ১১ অক্টোবর, ২০১৯
চারজন পিবিআইের হেফাজতে।

ঈশ্বরদীতে উদ্ধার হওয়া অজ্ঞাত লাশের পরিচয় উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

শুক্রবার (১১ অক্টোবর) দুপুরে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান পিবিআই, পাবনা জেলা প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তরিকুল ইসলাম। এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

অজ্ঞাতনামা মরদেহের ব্যক্তির নাম জাহাঙ্গীর হোসেন (৪০)। তিনি নাটোর সদর উপজেলার জয়নগর গ্রামের জান মোহাম্মদের ছেলে। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার রমজান আলী, মিজানুর রহমান, আব্দুল শুকুর ও আকছেদ আলী।

পুলিশ সুপার তরিকুল ইসলাম জানান, গত ৭ অক্টোবর সকালে পাবনা-ঈশ্বরদী মহাসড়কের পাশ থেকে একজন অজ্ঞাতনামা পুরুষের হাত-পা-মুখ বাঁধা মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় ঈশ্বরদী থানা পুলিশ বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করে। এরপর উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে মামলার তদন্ত করে পিবিআই। তথ্য-প্রযুক্তির সহায়তায় মামলাটির রহস্য উদঘাটন, মরদেহের পরিচয় সনাক্ত এবং ঘটনার সাথে জড়িত চারজনকে নাটোরের বড়াইগ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

পিবিআই জানায়, গ্রেপ্তারকৃতরা সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারী চক্রের সদস্য। তারা বিভিন্ন জেলার গরু মহিষের হাট থেকে ট্রাকে ভাড়া নেয়ার কথা বলে গরু মহিষ তোলে। পরে সুবিধামতো স্থানে গিয়ে মালিকদের হাত-পা বেঁধে মারধর করে রাস্তায় ফেলে রেখে গরু-মহিষ নিয়ে পালায়।

এরই ধারাবাহিকতায় ৬ অক্টোবর রাজশাহী সিটি হাট থেকে মহিষ কিনতে যান জাহাঙ্গীর হোসেন। ট্রাক ভাড়া করে বাড়ি ফেরার পথে ছিনতাইকারী চক্র তার হাত-পা-মুখ বেঁধে মহাসড়কের পাশে ফেলে রেখে যায়। শক্ত করে মুখ বাঁধার কারণে ট্রাকের ভেতরেই জাহাঙ্গীরের মৃত্যু হয় বলে জানায় পিবিআই।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666
error: © স্বত্ব ঈশ্বরদী নিউজ টুয়েন্টিফোর