ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০৯:০৭ পূর্বাহ্ন

ঈশ্বরদীতে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রীকে উত্যক্ত, প্রতিবাদ করায় চারজনকে পেটাল বখাটে

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত: রবিবার, ১১ অক্টোবর, ২০২০
ঈশ্বরদীর ম্যাপ

ঈশ্বরদী উপজেলার সলিমপুর ইউনিয়নের জগন্নাথপুর গ্রামের বালুর খাদ এলাকায় ৮ম শ্রেণীতে পড়ুয়া এক স্কুল ছাত্রীকে  রাস্তাঘাটে প্রকাশ্যে উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় বখাটে হৃদয় হোসেনসহ (২৫) তার অন্য সহযোগিরা তাঁর বাবা, মা ও চাচাসহ পরিবারের ৪ সদস্যকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে।

আহতদের উদ্ধার করে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

এদিকে ঈশ্বরদী থানায় বখাটে হৃদয় শেখকে প্রধান আসামী করে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে ভূক্তভোগীর পরিবার।

শনিবার (১০ অক্টোবর) দুপুরে ঈশ্বরদী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শামীম হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

পুলিশ, লিখিত অভিযোগ ও স্থানীয়রা জানান, প্রায় এক বছর পূর্বে থেকে জগন্নাথপুর গ্রামের জনৈক ব্যক্তির স্থানীয় উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্রীকে (১৩) স্কুলে ও প্রাইভেটে যাওয়া আসার সময় একই এলাকার রঞ্জু শেখের ছেলে হৃদয় শেখ (২৫) প্রায়ই উত্যক্ত করতো।

প্রায় ৬ মাস পূর্বে ওই স্কুল ছাত্রী বিষয়টি তার বাবা-মাকে জানালে তারা বিষয়টি হৃদয় শেখের পরিবারকে জানায়। এতে হৃদয় ক্ষিপ্ত হয়ে স্কুল ছাত্রীকে বিভিন্ন মাধ্যমে বিয়ে করার প্রস্তাব দেয়। এতেও কাজ না হলে তাকে উঠিয়ে নিয়ে যাওয়ারও হুমকি দেয়।

গ্রামের সহজ-সরল মানুষ হওয়ায় ওই পরিবার বিষয়টি স্থানীয় ইউপি সদস্য ফুরকান আলীকে জানায়। তিনি বিষয়টি স্থানীয়ভাবে বসে সাময়িকভাবে সমাধান করলেও গত এক সপ্তাহ পূর্বে হৃদয় আবারও নানাভাবে স্কুল ছাত্রীকে উত্যক্ত শুরু করে।

প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে স্কুল ছাত্রীর একটি নগ্ন ছবি বানিয়ে তা ফেইসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার কথা বলে ব্লাকমেইলের চেষ্টা করে।

বিষয়টি ওই নাবালিকা ছাত্রীর পরিবার জেনে যাওয়ায় গত শুক্রবার বিকেলে তারা হৃদয় শেখের কাছে জানতে চান সে কেন একজন মেয়ের বিরুদ্ধে এমন ন্যাক্কারজনক কাজ করছে।

এতেই ক্ষিপ্ত হয়ে বখাটে হৃদয় শেখ তাঁর বন্ধু মাহফুজ ও সুমন লাঠিসোটা নিয়ে স্কুল ছাত্রীর বাবা হাসান বিশ্বাস ও মা অন্যা খাতুনকে এলোপাথারি মারপিট করে গুরুতর আহত করে।

সে সময় হাসান বিশ্বাসের চাচা মহসীন বিশ্বাস (৫০) ও চাচাতো ভাই মজনু বিশ্বাস এগিয়ে এলে তাদেরও পিটিয়ে আহত করে বখাটে হৃদয়ের সহযোগী ইসলাম হোসেন, রঞ্জু শেখ, লিমন, রাবেয়া বেগম ও মাবিয়া খাতুনসহ অন্যরা।

খবর পেয়ে ঈশ্বরদী থানার পুলিশের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে।

একাধিক সুত্র জানায়, আওয়ামীলীগের স্থানীয় কতিপয় নেতার পরোক্ষ সহযোগীতায় বখাটে সন্ত্রাসী হৃদয় শেখ এলাকায় বেপরোয়া চলাফেরা করে। কেউ কিছু বললেই তাকে নানা ধরণের হুমকি-ধামকি দেয় বলেও জানায় তারা।

ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ নাসীর উদ্দিন জানান, অভিযোগ পেয়েই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্ত শেষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২০
 
themebaishwardin3435666