ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১, ০৯:০৭ অপরাহ্ন

বিজেপি এলেই কাশ্মীর সমস্যার সমাধান হবে, বললেন পাক প্রধানমন্ত্রী

ঈশ্বরদীনিউজ২৪.নেট, প্রতিবেদন
  • প্রকাশিত: বুধবার, ১০ এপ্রিল, ২০১৯
ইমরান খান ও নরেন্দ্র মোদি

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিজেপি আবারও ক্ষমতায় এলে কাশ্মীর সমস্যার সমাধানের সম্ভাবনা বেশি থাকবে।

বৃহস্পতিবার ভারতে অনুষ্ঠিতব্য লোকসভা নির্বাচনের ঠিক আগে আগে তিনি এই মন্তব্য করেন বলে জানায় বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

ইমরান খান বলেন, যদি আগামীবার কংগ্রেস ক্ষমতায় আসে তাহলে তারা ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তানের সঙ্গে সমঝোতায় পৌঁছাতে ভয় পেতে পারে। ডানপন্থী দলগুলোর কঠোর সমালোচনার ভয়ে পিছু হটতে পারে তারা।

‘সম্ভবত ডানপন্থী দল বিজেপি জিতলে কাশ্মীর ইস্যুতে কোনও একটা সমঝোতায় পৌঁছানো সম্ভব,’ বিদেশি সাংবাদিকদের ছোট একটি দলকে বলেন ইমরান।

ভারতীয় পত্রিকা আনন্দবাজারের খবরে বলা হয়, পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান মনে করেন, নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী মোদির দল জিতলে কাশ্মীর ইস্যুতে দু’দেশের মধ্যে ফের শান্তি আলোচনা শুরুর সম্ভাবনা আর তা ফলপ্রসূ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

বিজেপি ফের না জিতলে কী হতে পারে সে প্রসঙ্গে ইমরান বলেন, ভোটে জিতে কংগ্রেস ক্ষমতায় এলে কাশ্মীর সমস্যা যে তিমিরে ছিল, সেই তিমিরেই থাকবে। কারণ, ডানপন্থীরা হইচই বাঁধাবেন এই ভয়ে কাশ্মীর সমস্যা মেটাতে কংগ্রেস ততটা এগোবে না। যেটা একমাত্র সম্ভব, যদি বিজেপির মতো কোনও ডানপন্থী দল ক্ষমতায় আসে।

প্রাক্তন এই ক্রিকেটার বিভিন্ন দেশের সাংবাদিকদের নানা প্রশ্নের জবাবে দেওয়ার সময় মনে করিয়ে দেন, ভারতে মুসলিম ও অ-হিন্দুদের উপর লাগাতার আক্রমণের একের পর এক ঘটনা তার নজর এড়ায়নি।

তিনি বলেন, ভারতে এখন যা হচ্ছে, কখনওই তা দেখতে হবে বলে ভাবিনি। মুসলিম ভাবাদর্শের উপর আক্রমণ চলছে। চিনি, জানি এমন বহু ভারতীয় মুসলিম আমাকে বলেছেন আগে ওরা অনেক ভাল ছিলেন ও-দেশে। কিন্তু এখন ওদের ভাল লাগছে না। ওরা উগ্র হিন্দু জাতীয়তাবাদের উত্থানে উদ্বিগ্ন।

কেবল কাশ্মীর সমস্যা মেটানোর স্বার্থেই যে ইমরান মোদির প্রত্যাবর্তন চাইছেন মনে-প্রাণে, তা বোঝাতে গিয়ে পাক প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ওরা (প্রধানমন্ত্রী মোদি ও তার দল বিজেপি) ভোটটা করাতে চাইছেন ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর কায়দায়। ভয় দেখিয়ে। দেশপ্রেম, জাতীয়তাবোধের আবেগকে উস্কে দিয়ে।

তবে প্রধানমন্ত্রী মোদির নেতৃত্বে এনডিএ ফের ক্ষমতাসীন হলেও কাশ্মীর সমস্যা মেটার ক্ষেত্রে সংশয়টা যে থেকেই যায়, তারও ইঙ্গিত মিলেছে প্রাক্তন ক্রিকেটারের আর একটি রিভার্স সুইংয়ে

ইমরান বলেছেন, কাশ্মীর একটি রাজনৈতিক সমস্যা। সেনা দিয়ে তা মেটানো যাবে না।

সীমান্ত পেরিয়ে জঙ্গিরা ঢুকলে যেমন বিপদে পড়েন কাশ্মীরিরা, তেমনই অনুপ্রবেশকারী জঙ্গিদের নির্মূল করতে ভারতীয় নিরাপত্তাবাহিনী অভিযান চালালেও বিপদ বাড়ে কাশ্মীরিদের, বলেন ইমরান।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২১
 
themebaishwardin3435666