ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০৬:২৩ পূর্বাহ্ন

অবশেষে ঈশ্বরদীতে শিশুকে নির্যাতনে মামলা গ্রহণ, শিক্ষক গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত: রবিবার, ১১ অক্টোবর, ২০২০
ঈশ্বরদীর ম্যাপ।

শিকল দিয়ে বেঁধে মাদ্রাসার শিশু শিক্ষার্থী নির্যাতনের ঘটনায় অবশেষে ঈশ্বরদী থানায় মামলা হয়েছে। শনিবার (১০ অক্টোবর) দুপুর তিনটার পর মামলাটি রুজু করা হয়। থানার ওসি সেখ নাসির উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, নির্যাতিত শিক্ষার্থীর বাবা নজরুল ইসলাম মামলাটির বাদী। মামলায় মাদ্রাসা শিক্ষক পিয়ারুল ইসলামকে আসামী করা হয়েছে। মামলা নং ২০। ওই মামলায় শিক্ষক পিয়ারুলকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। শিক্ষার্থীর বাবা মামলা না করলে পুলিশ স্ব:প্রণোদিত হয়ে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি ছিল তাদের।

জানা গেছে, বিভিন্ন অনলাইনে নিউজ প্রকাশের পর শনিবার দুপুর তিনটার পরে শিশুটির বাবা নজরুল ইসলামকে ডেকে এনে মামলাটি দায়ের করা হয়।

প্রসঙ্গত, ঈশ্বরদীর সাহাপুর ইউনিয়নের কদিমপাড়া বুড়া দেওয়ান নূরানী হাফিজিয়া মাদ্রাসায় নূরানী বিভাগের শিক্ষার্থী মোবারক হোসেন (১১)কে তিন দিন লোহার শিকল দিয়ে বেঁধে রেখে নির্মম নির্যাতন ও থুতু ছিটিয়ে পুনরায় চাটানো হয়। মাদ্রাসায় সিনিয়র এক ছাত্রকে নিয়ে শিক্ষক পিয়ারুল ইসলাম শিশুটিকে শিকল দিয়ে বেধে তিনদিন ধরে নির্যাতন চালায়। সুযোগ বুঝে শিশুটি পালানোর সময় এলাকাবাসীর সহযোগিতা তাকে পুলিশের হেফাজতে নেওয়া হয়।

শেয়ার করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩ - ২০২০
 
themebaishwardin3435666